শিরোনাম
◈ জি এম কাদেরের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালনে বাধা নেই : হাইকোর্ট ◈ ১০ টাকায় টিকিট কেটে চক্ষু পরীক্ষা করালেন প্রধানমন্ত্রী ◈ বন্দি জঙ্গিরা যেন রাষ্ট্রবিরোধী তৎপরতা চালাতে না পারে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা থেকে দুর্নীতি নির্মূল করাই আমাদের লক্ষ্য: হাইকোর্ট ◈ মুজিব কোট পরলেই মুজিব সৈনিক হওয়া যায় না: কাদের ◈ ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টা মামলায় সাক্ষ্য দিলেন পরীমণি ◈ অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগকারিদের জন্য বিশেষ সুযোগ  ◈ রংপুর সিটি নির্বাচনে মোস্তাফাকে লাঙ্গলের মেয়র প্রার্থী ঘোষণা রওশনের ◈ পুলিশে ছেয়ে গেছে চীনের রাজপথ ◈ টাঙ্গাইলে বাসচাপায় দুই ব্যাংক কর্মকর্তা নিহত

প্রকাশিত : ০৮ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০৯ রাত
আপডেট : ০৮ অক্টোবর, ২০২২, ০১:১৬ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

কুমিল্লায় বাল্কহেডের ধাক্কায় ব্রিজ ভেঙে নদীতে!

কুমিল্লা প্রতিনিধি: কুমিল্লার দাউদকান্দিতে বাল্কহেডের ধাক্কায় ১৫ বছর পুরনো সেতু ভেঙ্গে পড়েছে একটি পাকা সেতুর একাংশ ভেঙে গেছে।

বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) রাত তিনটা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার ছান্দ্রা গ্রামের কাছে কালাডুমুর নদে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। দুর্ঘটনার পর ওই বাল্কহেডের চালক ও তাঁর সহকারীরা সাঁতরে তীরে উঠে যায় বলে জানান যায়।

স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, দাউদকান্দি উপজেলার গৌরিপুর বাজারের পাশের কালাডুমুর নদের ওপর  দক্ষিণের ছান্দ্রা গ্রাম থেকে উত্তরের গলিয়ার চর ও চরচার পাড়সহ অন্তত পাঁচ গ্রামের যোগাযোগের ব্রিজ এটি।  সেতু ভেঙে পড়ায় প্রায় ছয় কিলোমিটার পথ ঘুরে গৌরীপুর বাজার ও গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড হয়ে যাতায়াত করতে হবে এইসব এলাকার বাসিন্দাদের।

স্থানীয় রায়পুর গ্রামের  পোস্ট অফিসের মাস্টার রফিকুল ইসলাম বলেন, দুর্ঘটনা ঘটেছে আরও চারদিন আগে। ওইসময় থেকে এখন পর্যন্ত (শুক্রবার বিকেল সন্ধ্যা ৬টা) ব্রিজের ভাঙা অংশ বাল্কহেডের ওপর পড়ে আছে। এদিকে এই এলাকার প্রায় তিন হাজার মানুষের যাতায়াতের এই ব্রিজটির জন্য ভোগান্তির কুলকিনারা নেই।

ফায়ার সার্ভিস দাউদকান্দি ইউনিটের স্টেশন অফিসার মো. রাসেল বলেন, কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান বলেছেন, যেহেতু ভেঙেছে বাল্কহেড তাই তারাই উদ্ধার কাজ করবে। প্রয়োজন হলে আমাদের ডাকবে। কিন্তু এখনও আমরা কোন মেসেজ পাইনি।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) দাউদকান্দি উপজেলা প্রকৌশলী মো. আফসার হোসেন খন্দকার বলেন, আমি গিয়েছি ঘটনাস্থলে। ব্রিজটি মেরামতের সুযোগ নেই। তাছাড়া ব্রিজটি ডেমেজ হয়ে গেছে। এখানে নতুন আরেকটি ব্রিজ স্থাপনের জন্য সব কাগজপত্র রেডি করেছি।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়