শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৩ অক্টোবর, ২০২২, ০৮:৩৯ রাত
আপডেট : ০৩ অক্টোবর, ২০২২, ০৮:৩৯ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

উজিরপুরের শোলকে সন্ত্রাসী হামলার শিকার বাবা ও ছেলে

উজিরপুর প্রতিনিধি : বরিশাল জেলার উজিরপুর উপজেলার শোলকে সন্ত্রাসী হামলার গুরুতর আহত হয়েছে বাবা ও ছেলে। হামলার ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। 

অভিযোগ ও আহত সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শোলক গ্রামের নুরে আলম চোকদারের ছেলে এইচএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ ফাহিম চোকদার(১৮) কে ২ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় শোলক চোকদার বাড়ীর জামে মসজিদের সামনে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পার্শ্ববর্তী যুগিহাটী গ্রামের আলাবক্স বালীর ছেলে বাপ্পী বালী(২২) ও ওই এলাকার অন্তু নামের এক যুবকসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী মিলে দেশীয় অস্ত্র সাজে সজ্জিত হয়ে পরিকল্পিত ভাবে শিক্ষার্থী ফাহিম চোকদারের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। 

এ সময় ডাকচিৎকার করলে তার বাবা ব্যবসায়ী মোঃ নুরে আলম চোকদার ঘটনাস্থলে ছুটে এসে প্রতিবাদ করলে তাকেও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে নগদ এক লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং পরবর্তীতে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে বীরদর্পে চলে যায়।

স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করে। এরমধ্যে শিক্ষার্থী ফাহিম গুরুতর আহত হয়। হামলার ঘটনায় নুরে আলম চোকদার বাদী হয়ে ওই রাতেই উল্লেখ্য অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উজিরপুর মডেল থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। 

এ ব্যাপারে স্থানীয় মুদি মনোহারি ব্যবসায়ী মোঃ ডালিম হাওলাদার জানান ঘটনার পূর্বে ৪০/৫০জন অপরিচিত সন্ত্রাসী লাঠি শোঠা নিয়ে মহড়া দেয় এবং কিছুক্ষণ পরে হামলা চালায়।

আহত শিক্ষার্থীর বাবা নুরে আলম চোকদার বলেন, সন্ত্রাসী ও মাদকসেবী বাপ্পী বালী ১৫/২০জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীদের নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার ছেলের উপর হামলা চালায় এবং আমি বাঁধা দিতে গেলে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকেও পিটিয়ে আহত করে আমার ব্যবসায়ের নগদ এক লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অভিযুক্তদের পাওয়া যায়নি।

অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল হাসান জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এদিকে ওই হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন আহত'র পরিবার।   

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়