শিরোনাম
◈ যাত্রবাড়ীর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ একজনের মৃত্যু ◈ নির্ধারিত সময়ে হল ছাড়ায় শিক্ষার্থীদের ধন্যবাদ দিলেন ঢাবি ভিসি ◈ ঢাবি উপাচার্যের সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রীর বৈঠক; রাতে পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ ◈ যাত্রাবাড়িতে পুলিশের সঙ্গে দুর্বৃত্তদের সংঘর্ষ, টোল প্লাজায় আগুন ◈ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রাতে আবার পুলিশ–শিক্ষার্থী সংঘর্ষ ◈ কোটা আন্দোলনকারীদের কমপ্লিট শাটডাউনে বিএনপির সমর্থন ◈ বিএনপি-জামাতের লাশের রাজনীতিতেই মানুষ নিহত হয়েছে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ আগামীকাল সারাদেশে কোটা আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ‘কমপ্লিট শাটডাউন' ◈ শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ ঘোষণা করলেন রাবি উপাচার্য ◈ সহিংসতার সঙ্গে কোটা আন্দোলনকারীদের সম্পর্ক নেই, সন্ত্রাসীরা সুযোগ নিয়েছে: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত : ১১ জুলাই, ২০২৪, ০৫:২১ বিকাল
আপডেট : ১১ জুলাই, ২০২৪, ০৫:২১ বিকাল

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

ভৈরবে ভুয়া জন্ম সনদে জাতীয় পরিচয়পত্র বানাতে এসে ২ রোহিঙ্গা আটক

ইমন মাহমুদ, ভৈরব: [২] কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ভুয়া জন্ম সনদ দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বানাতে এসে এক নারীসহ দুই রোহিঙ্গাকে আটক করেছে ভৈরব থানা পুলিশ। বুধবার (১০ জুলাই) বিকালে ভৈরব উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে তাদের আটক করা হয়। 

[৩] আটককৃতরা হলেন, কক্সবাজার জেলার হামিদাপাড়া পাহাড়তলী এলাকার মো. সালেহের স্ত্রী হামিদা বেগম (২৮) ও একই জেলার রামু এলাকার রফিক আহমেদ ছেলে মো. এরশাদ (২০)। 

[৪] জানা যায়, বুধবার (১০ জুলাই) সকাল ১১ টায় উপজেলা নির্বাচন অফিসে ভুয়া ডকুমেন্ট নিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র তৈরী করতে আসেন হামিদা বেগম। এসময় তার সাথে সহযোগী ছিল মো. এরশাদ। নির্বাচন অফিসার প্রলয় কুমার সাহা তাদের প্রয়োজনী কাগজপত্রাধি দেখে সন্দেহ হলে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন। এসময় তারা কোন সদোত্তর দিতে পারেনি। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে তারা এসে দুইজনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। 

[৫] এ বিষয়ে ভৈরব উপজেলা নির্বাচন অফিসার প্রলয় কুমার সাহা বলেন, ভোটার নিবন্ধন করার সময় হামিদা বেগমে কে তার নাম, পিতা-মাতার নাম জিজ্ঞেসা করা হলে তার কথাবার্তায় আমার সন্দেহ হয় এবং ভৈরবেরও মনে হচ্ছিল না। পরে আমি অধিকতর তদন্ত করলে দেখি তার নিবন্ধন আবেদনে সে নিজের যে জন্ম নিবন্ধন ব্যবহার করেছে তা গাজিপুরের সিটি করপোরেশন থেকে তোলা আর তার পিতা-মাতার যে এনআইডি কার্ড ব্যবহার করেছে তা ছয়সূতি এলাকার। 

[৬] পরে এর কারণ জানতে চাইলে তিনি এর সঠিক উত্তর দিতে পারেননি। এছাড়া ওনাকে ভৈরবে কোনো আত্মীয় থাকলে খবর দিতে বলা হলেও এরও উওর দিতে পারেননি।  দীর্ঘক্ষণ বসিয়ে রেখে কোনো সঠিক উওর না পাওয়ায় তখন আমার কাছে মনে হচ্ছিল তারা রোহিঙ্গা হবে। পরে আমি পুলিশকে খবর দিয়ে পুলিশ এসে তাদের থানায় নিয়ে যায়।

[৭] এ বিষয়ে ভৈরব থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. সফিকুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিক ভাবে জিজ্ঞাসাবাদে হামিদা বেগম একজন রোহিঙ্গা বলে জানা গেছে। তার সাথে থাকা সহযোগী মো. এরশাদও রোহিঙ্গা তবে সে দীর্ঘদিন যাবত কক্সবাজার বসবাস করছে। তারা দুইজন নির্বাচন অফিসে ভুয়া কাগজে ভোটার আইডি কার্ড বানাতে এসেছিল। তাদের বিরুদ্ধে জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন আইন ২০১০ এর ১৪/১৮ ধারায় মামলা হয়েছে। আজ সকালে তাদের কিশোরগঞ্জ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। সম্পাদনা: এ আর শাকিল

প্রতিনিধি/এআরএস

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়