শিরোনাম
◈ দেশের যেসব অঞ্চলে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ের আশঙ্কা ◈  সরকার থেকে বরাদ্দ করলে সংসদ সদস্যদের গাড়ি আমদানির প্রয়োজন নেই: সংসদে আলোচনা ◈ ঈদে যানজট এড়াতে ডিএমপির ২২ নির্দেশনা ◈ নেপিয়ার ঘাস খেয়ে মারা গেলো খামারের ২৬ গরু ◈ এমপি আনার হত্যা তদন্তে কোনো চাপ নেই: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ◈ তারেক রহমানসহ পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী ◈ সাধারণ নাগরিকের মতো করেই ড. ইউনূসের বিচার হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ◈ ড. ইউনূসের কথা অসত্য, জনগণের জন্য অপমানজনক: আইনমন্ত্রী ◈ সরকারের ব্যাংকঋণে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ ব্যাহত হবে: সিপিডি ◈ বাবার হত্যার সঠিক বিচার চেয়েছেন নিহত আজিম আনারের কন্যা 

প্রকাশিত : ১১ জুন, ২০২৪, ০৫:২৬ বিকাল
আপডেট : ১১ জুন, ২০২৪, ০৯:০১ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

লক্ষ্মীপুরে ইজারা না পেয়ে

ইউপি চেয়ারম্যানের ছেলের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের দিয়ে মানববন্ধন করানোর অভিযোগ

রাকিবুল ইসলাম, লক্ষ্মীপুর: [২] লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা না পেয়ে স্কুল পড়ুয়া কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে মানববন্ধন করানোর অভিযোগ উঠেছে উপজেলার বামনি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সীর ছেলে মিরণ হোসেনের (৩০) বিরুদ্ধে। কাজীর দিঘীরপাড় সরকারী প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠটি অস্থায়ী পশুর হাট হিসেবে ইজারা পেতে চেয়ারম্যানের ছেলে মিরণ গড়ে তোলে একটি সিন্ডিকেট। তার সাথে যুক্ত হয় একই বিদ্যালয়ের এক শিক্ষক ও স্কুল কমিটির এক সদস্য। 

[৩] ইজারা পাওয়া ছাত্রলীগ নেতা নুর নবী চৌধুরীকে পরাস্ত করতে মিরণের সাথে অংশ নেয় মোরশেদ আলম চৌধুরী ও মোঃ মনিরুজ্জামান। এতে মোরশেদ ডাক তোলেন ২০ হাজার ২শ টাকা এবং মোঃ মনিরুজ্জামান তোলেন ২২ হাজার ৫শ টাকা। একই ডাকে মিরণ তোলেন ৪৭ হাজার টাকার ডাক। পরে নুর নবী চৌধুরী ৪৮ হাজার তুললে ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ১০ শতাংশ আয়করসহ সর্বমোট ৬০ হাজার টাকা পরিশোধ করেন তিনি। পশুর হাটটির সরকারি মূল্য ১৮ হাজার টাকা। 

[৪] জানা যায়, তিনজনের সিন্ডিকেট গড়া মিরণের বাবা চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সী মানববন্ধনে অংশ নেয়া বিদ্যালয়টির বিদ্যুৎসাহী সদস্য। সে সুবাদে চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সী প্রত্যক্ষ নির্দেশনায় ও সহযোগিতায় বিদ্যালয় মাঠে পশুর হাট বন্ধের দাবিতে মঙ্গলবার (১১ জুন) দুপুরে মানবন্ধন করে রায়পুর উপজেলার কাজীর দিঘীরপাড় সরকারি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিজাম উদ্দিনের নেতৃত্বে মানববন্ধনে বিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী অংশ নেয়। এসময় শিক্ষার্থীরা স্কুল মাঠে গরু ছাগলের হাট বন্ধের দাবিতে দেয় নানান ধরনের স্লোগান। 

[৫] এ বিষয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমরা কোনো কিছু জানতাম না। ক্লাস থেকে ডেকে নিয়ে একজন আমাদের হাতে ব্যনার ধরিয়ে দেয়। তারপর ছবি তুলে চলে যায় তারা।

[৬] অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারা পাওয়া ছাত্রলীগ নেতা নুর নবী চৌধুরী (১৯) অভিযোগ করে বলেন, চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সীর ছেলে মিরণ হোসেন কোমলমতি শিক্ষার্থীদের দিয়ে মানববন্ধন করিয়েছে। তারা প্রভাব খাটিয়েছে। কারণ চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন স্কুলের বিদ্যৎসাহী সদস্য। গতকাল ডাক পাওয়ার পর রাতে আমার লোকজন বাঁশ গাড়তে গেলে চেয়ারম্যান লোকজন আমার লোকজনকে বলে, বাঁশ গাড়লে তাদের হাত পা ভেঙ্গে দিবে। 

[৭] প্রধান শিক্ষক নিজাম উদ্দিনসহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থিদের দাবী, প্রতি মঙ্গলবার হাটের কারণে স্কুল বন্ধ থাকে। এছাড়া ঈদের সময় বুধবার ও বৃহস্পতিবার দুইদিন হাট চলে। এতে করে শিক্ষার্থীদের লেখা পড়া বিঘ্নিত হয়। পাশপাশি গরু ছাগলের হাটের কারণে বিদ্যালয়ের গোটা মাঠ অধিকাংশ সময় কর্দমাক্ত থাকে। চলাচল নানাভাবে ব্যাঘাত ঘটে। এসব কারণে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। ভালো শিক্ষার্থীরা এখানে ভর্তি হতে চায় না। এছাড়াও শিক্ষার নতুন কাইটেরিয়া স্কুল মাঠে ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন ক্লাস করাতে হয়। তাই এ মাঠে হাট বসালে বিদ্যালয়ে ক্লাস পরিচালনার পরিবেশ নষ্ট হয়। 

[৮] অভিযোগের বিষয়ে সিন্ডিকেটের মুল হোতা মিরণ হোসেন বলেন, স্কুল কর্তৃপক্ষ কেন মানববন্ধন করেছে সেটি তাদের ব্যাপার। আমি কিছু জানি না। আমার বাবা বিদ্যালয়টির বিদ্যুৎসাহী সদস্য। আমাদের দায় নেই। ইজারার দিন আমার বাবা উপস্থিত ছিলেন। ইজারা নিয়ে আমার কোনো আপত্তি নেই। আমার থেকে বয়সে ছোটো নুর নবী হাটটি ইজারা নেয়ায় আমার ইগোতে লেগেছে। 

[৯] বিষয়টি নিয়ে জানতে চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সীকে বেশ কয়েকবার মোবাইল কল করা হলেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

[১০] এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইমরান খান বলেন, আগে থেকেই এখানে বাজার বসছে, অস্থায়ী পশুর হাট দিতে সেখানে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই। তাই আমরা দিয়েছি। স্থানীয় চেয়ারম্যান তাফাজ্জল হোসেন মুন্সি ইজারার দিন উপস্থিত ছিলেন। তিনি ক্ষতির বিষয়ে কিছু উল্লেখ করেন নি। কোনো বাধা না থাকায় উন্মুক্ত ডাকের মাধ্যমে ভ্যাট ও আয়করসহ হাটটি ৬০ হাজার টাকায় ইজারা দেয়া হয়েছে। সম্পাদনা: এ আর শাকিল

প্রতিনিধি/এআরএস

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়