শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৯ জানুয়ারী, ২০২২, ০২:১৩ রাত
আপডেট : ১৯ জানুয়ারী, ২০২২, ০২:১৩ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের রেকর্ড মূল্য বৃদ্ধি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দর বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। এরইমধ্যে সোমবার (১৭ জানুয়ারি) সংযুক্ত আরব আমিরাতে তেলের ট্যাংকারে হুতি বিদ্রোহীদের ড্রোন হামলায় প্রাণহানির খবরে তৈরি হয়েছে অস্থিরতা। এতে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দামের পালে আরও হাওয়া লেগেছে। ২০১৪ সালের পর মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) জ্বালানি তেলের দর রেকর্ড উচ্চতা স্পর্শ করেছে।

ওয়েল প্রাইস ওয়েবসাইটের তথ্য অনুযায়ী, মঙ্গলবার বিশ্ববাজারে ব্রেন্ট ক্রুডের দর প্রতি ব্যারেলে ১.৯ শতাংশ বেড়ে সর্বোচ্চ ৮৮.১৩ মার্কিন ডলারে বিক্রি হয়েছে। এছাড়া ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) ক্রুডের প্রতি ব্যারেল আগের দিনের চেয়ে ২.৩ শতাংশ বেড়ে বিক্রি হয়েছে ৮৫.৭৪ মার্কিন ডলারে। ২০১৪ সালের অক্টোবরের পর অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের এ দর সর্বোচ্চ।

সোমবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে তিনটি তেলের ট্যাংকারে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ট্যাংকারগুলো আবুধাবি ন্যাশনাল ওয়েল কোম্পানির (এডিএনওসি) মালিকানাধীন। এতে রাষ্ট্রায়ত্ত ওই কোম্পানির তিন কর্মচারী নিহত এবং ছয়জন আহত হন। আবুধাবিতে তেলের ট্যাংকারে ড্রোন হামলার দায় শিকার করেছে হুতি বিদ্রোহী গোষ্ঠী। আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষও ঘটনাটি হুতিদের হামলা বলে বর্ণনা করেছে।

মূলত, গত বছরের মাঝামাঝি সময় থেকে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস মহামারির তীব্রতা কমে যাওয়ায় তেলের চাহিদা বাড়তে থাকে। তবে এর বিপরীতে পর্যাপ্ত জোগান দিতে পারেনি তেল উত্তোলক দেশগুলো। এতে তেলের দর লাফিয়ে বাড়তে থাকে। এমন পরিস্থিতিতে তেল রফতানিকারক দেশগুলো লাভবান হলেও ভোক্তা দেশগুলোর মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা কঠিন হয়ে পড়েছে। তেলের দরে লাগাম টানতে যুক্তরাষ্ট্র-চীনসহ শীর্ষ ভোক্তারা গত বছরের শেষ দিকে মজুত থেকে জ্বালানি তেল বাজারে ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে এতকিছুর পরও নানা কারণে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।

নতুন বছরে বিশ্বব্যাপী ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়ার খবরের মধ্যেও জ্বালানি তেলের চাহিদায় কোনো ভাটা পড়েনি। বরং নতুন বছরে এ পর্যন্ত অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দর ১০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। এদিকে মঙ্গলবার পেট্রোলিয়াম পণ্য রফতানিকারক দেশগুলোর সংস্থা ২০২২ সালে বিশ্বে জ্বালানি তেলের দৈনিক চাহিদা ৪২ লাখ ব্যারেল বলে ঠিক করেছে— যা গত বছরের চেয়ে বেশি।

অন্যদিকে তেল আমদানিকারক দেশগুলোর জন্য আশঙ্কাজনক এক পূর্বাভাস দিয়েছে মার্কিন বিনিয়োগ ব্যাংক গোল্ডম্যান স্যাকস। প্রতিষ্ঠানটির নতুন এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, চলতি বছরের তৃতীয় ত্রৈমাসিক প্রান্তিকে জ্বালানি তেলের দর ব্যারেল প্রতি ১০০ মার্কিন ডলার পর্যন্ত ছাড়িয়ে যেতে পারে।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়