শিরোনাম

প্রকাশিত : ১৮ জানুয়ারী, ২০২২, ১২:০৪ রাত
আপডেট : ১৮ জানুয়ারী, ২০২২, ০১:৩২ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] ভারতে করোনায় প্রায় দেড় লক্ষ শিশু তাদের মা-বাবাকে হারিয়েছে: এনসিপিসিআর

আখিরুজ্জামান সোহান: [২] ভারতে শিশুর অধিকার রক্ষায় জাতীয় কমিশন (এনসিপিসিআর) সুপ্রিম কোর্টকে জানিয়েছে, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে দেশের ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯২ জন শিশু করোনা এবং অন্যান্য কারণে তাদের বাবা-মায়ের মধ্যে কোনো একজন অথবা দুজনকেই হারিয়েছে। এর মধ্যে ৭৬,৫০৮ জন ছেলে, ৭০,৯৮০ জন মেয়ে এবং ৪ টি হিজড়া শিশু রয়েছে।

[৩] সোমবার হিন্দি গণমাধ্যম ‘দৈনিক ভাস্কর’ সূত্রে প্রকাশ- 'এনসিপিসিআর’ বলেছে, তাদের পরিসংখ্যান রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোর পক্ষ থেকে বাল স্বরাজ পোর্টাল-কোভিড কেয়ারে দেওয়া তথ্যের উপর ভিত্তিতে তৈরি করা হয়েছে।

[৪] কমিশন বলেছে, ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত তথ্য অনুযায়ী, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে দেশে ১০,০৯৪ শিশু এতিম হয়েছে, ১ লাখ ৩৬ হাজার ৯১০টি শিশু পিতা-মাতার মধ্যে কোনও একজনকে হারিয়েছে এবং ৪৮৮ শিশু তাদের পিতামাতার দ্বারা পরিত্যক্ত হয়েছে। সব মিলিয়ে এই সংখ্যা ১ লাখ ৪৭ হাজার ৪৯২।

[৫] প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই শিশুদের মধ্যে, ৫৯,০১০ টি শিশুর বয়স ৮ থেকে ১৩ বছরের মধ্যে। এরপরে ২২,৭৬৩ টি শিশু ১৪ থেকে ১৫ বছর বয়সী রয়েছে। ১৬ থেকে ১৮ বছর বয়সী ২২,৬২৬ শিশু এবং ৪ থেকে ৭ বছর বয়সী ২৬,০৮০ জন শিশু রয়েছে।

[৬] এরমধ্যে ১ লাখ ২৫ হাজার ২০৫ টি শিশু তাদের মা অথবা বাবার সাথে আছে, ১১,২৭২টি শিশু পরিবারের কোনও সদস্যদের সাথে বাস করছে এবং ৮,৪৫০টি শিশু অন্য অভিভাবকদের তত্ত্বাবধানে আছে। ১ হাজার ৫২৯টি শিশু শিশু হোমে, ১৯টি শিশু আশ্রয়কেন্দ্রে, ২টি শিশু পর্যবেক্ষণ হোমে, ১৮৮টি এতিমখানায়, ৬৬টি শিশু বিশেষ দত্তক সংস্থায় এবং ৩৯টি শিশু হোস্টেলে রয়েছে।

[৭] ই শিশুদের মধ্যে উড়িষ্যার ২৪,৪০৫টি শিশু,১৯ হাজার ৬২৩ শিশু মহারাষ্ট্রের, ১৪ হাজার ৭৭০টি শিশু গুজরাটের, তামিলনাড়ুর, ১১ হাজার ১৪টি শিশু, উত্তর প্রদেশের, ৯২৪৭টি শিশু, ৮ হাজার ৭৬০টি শিশু অন্ধ্র প্রদেশের, ৭ হাজার ৩৪০টি শিশু মধ্য প্রদেশের, ৬ হাজার ৮৩৫টি শিশু, পশ্চিমবঙ্গের, ৬ হাজার ৮৩৬টি শিশু, দিল্লির ৬ হাজার ৬২৯টি শিশু এবং রাজস্থানের ৬ হাজার৮২৭টি শিশু রয়েছে।

[৮] কমিশন বলেছে, এই মহামারীতে শিশুরা যাতে কোনোভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত না হয় তা নিশ্চিত করা হচ্ছে। এই বিষয়ে, রাজ্য কমিশনের সাথে একটি ভার্চুয়াল বৈঠকে শিশুদের স্বার্থ রক্ষায় তাদের প্রস্তুতির পর্যালোচনা করছে কমিশন। #

সূত্র: পার্সটুডে

  • সর্বশেষ