প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গর্জনিয়া বাজারে ফ্লীম স্টাইলে ডাকাতি!

হাবিবুর রহমান: [২] রামুর গর্জনিয়া বাজারের সরকারী মহিলা মার্কেটের দুটি দোকানে দিন দুপুরে ফ্লীম স্টাইলে ডাকাতি ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. শাহলাম বাদী হয়ে, গর্জনিয়া পুলিশ ফাড়িঁতে অভিযোগ দায়ের করেন।

[৩] অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শনিবার বিকাল ৪ টার দিকে, কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের ফাক্রির কাটা, বড় জামছড়ি এলাকার মৃত, মো. হাসেম খলিফার ছেলে, (১) বহু মামলার দাগী আসামি মো. আবছার কামাল বাবু (৩৬) এর নেতৃত্বে, দিদারুল আলম (৩৯), মুহাম্মদ আক্তার (২৮), মো. রুবল (২৫) সহ অজ্ঞাতনামা ১০/১২ জন সন্ত্রাসী, পূর্ব পরিকল্পিতভাবে, দেশীয় অস্ত্রসহ সজ্জিত হয়ে দিন দুপুরে বিকাল ৪ টার দিকে, রামুর গর্জনিয়া বাজারের, নতুন সরকারী মহিলা মার্কেটস্থ, মেসার্স ফাতেমা স্টোর ও মেসার্স রহিমা স্টোরের ১ নং বিবাদীর নেতৃত্বে, ২ নং থেকে ৪ নং বিবাদী এক সাথে দুটি দোকানের তালা হাতুড়ি দিয়ে ভেংঙ্গে, অজ্ঞাতনামা সকল বিবাদীরা, মেসার্স রহিমা স্টোরে থাকা ১ টি কম্পউটার, ১টি ল্যাপটপ, একটি ডিএসএলআর (ডিজিটাল) ক্যামেরা, একটি স্যামসাং মোবাইল ফোন (যার অনুমানিক মুল্য ২ লাখ ২০ হাজার টাকা) লুটপাট করে নিয়ে যায়।

[৪] একইভাবে সকল বিবাদীরা, মেসার্স ফাতেমা স্টোরে থাকা, গার্মেস্ সামগ্রী ২ লাখ ৮০ হাজার টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় স্বাক্ষীরা স্থানীয় পুলিশকে অবহিত করলে, আসামিরা দ্রুত পালিয়ে যায়। এই ঘটনায় বাজারের ব্যবসায়ীদের তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা অভিলম্বে, ওইসব ডাকাতদের গ্রেপ্তার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্থি দাবী করেন।

[৫] গর্জনিয়া পুলিশ ফাড়িঁর আইসি মুহাম্মদ ফরহাদ আলী জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এই ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[৬] রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমা জানান, অপরাধী যেই হোক না কেন, জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বাধিক পঠিত