প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অবশেষে সরানো হচ্ছে বিদ্যুতের সেই খুঁটি!

বিল্লাল হোসেন: [২] গাজীপুর কালীগঞ্জের তুমলিয়া ক্রেডিট ইউনিয়নের সামনে থেকে বর্তুল বাজার পর্যন্ত সড়কে পল্লী বিদ্যুতের বেশ কিছু খুঁটি রেখে সংস্কার কাজ শেষ করা হয়। এ নিয়ে দেশের বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ হয়। আর সংবাদ প্রকাশের ১০ দিনের পর বিদ্যুতের সেই খুঁটিগুলো সরানো হচ্ছে।

[৩] সরেজমিনে বুধবার (৩ নভেম্বর) সকালে তুমলিয়া ইউনিয়নে বন্যা রক্ষা বাঁধের উপর নির্মিত ওই সড়কে গিয়ে দেখা যায়, বিদ্যুতের খুঁটি সরানোর কাজ করছে পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপপেক্ষর নিয়োহ করা ঠিকাদার। তবে মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) সকাল থেকে শুরু করা কাজ শেষ করতে আরো ৩/৪ দিন সময় লাগবে বলেও জানান, পল্লী বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ।

[৪] বিদ্যুতের খুঁটি সরানোয় স্বস্তি প্রকাশ করেছেন ওই সড়কে বসবাসকারী অনেকেই। ওই সড়ক সংলগ্ন দক্ষিণ ভাদার্ত্তী গ্রামের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম জানান, রাস্তা সংস্কারের সময় অনেকেই বৈদ্যুতিক খুঁটির ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে ছিল। কিন্তু কর্মকর্তারা এসব কথায় কর্ণপাত করেননি। ওই সড়ক দিয়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা আসা যাওয়া কারণে দুর্ঘটনার আশঙ্কা ছিল বেশি। পাশাপাশি ভারি যানবাহনের চাপ তো ছিলই। তবে অতিদ্রুত সড়কের উপর থেকে বৈদ্যুতিক খুঁটি সরানোর জন্য পল্লী বিদ্যুত কর্তৃপক্ষ ধন্যবাদ জানান তিনি।

[৫] বোয়ালী গ্রামের বাসিন্দা তাইজুল ইসলাম নিপু জানান, এই সড়কের পাশে বেশ কিছু কারখানা গড়ে উঠেছে। যে কারণে সেখানে ভারি যানবাহন চলাচল করে। আর এই সব যানবাহনের কারণেই সড়কটি তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে অচল ছিল দীর্ঘদিন। বহু প্রতিক্ষার পর রাস্তা সংস্কার হলে বৈদ্যুতিক খুঁটিগুলো সরানো হয়নি। তবে এখন মোটামোটি শঙ্কামুক্ত বলা চলে। এখর আর বিদ্যুতের খুঁটির কারণে কোন দুর্ঘটনা ঘটবে না বলেও তিনি আশা করেন।

[৬] ইউপি সদস্য মো. মাহফুজুর রহমান জানান, বিষয়টি নিয়ে তিনি বেশ কয়েকবার পল্লী বিদ্যুত কর্তৃপক্ষ ও উপজেলা প্রকৌশলীর সহযোগীতা চেয়েছেন। অবশেষে তাদের যৌথ সমন্বয়ে বিদ্যুতের খুঁটিগুলো সড়ক থেকে সরানোর কাজ শুরু করেছে।

[৭] বিষয়টি আমলে নিয়ে পল্লী বিদ্যুত ও সড়ক কর্তৃপক্ষ ধন্যবাদ জানান, তুমলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবু বকর মিয়া।

[৮] উপজেলা প্রকৌশলী বেলাল হোসেন সরকার বলেন, আমরা পল্লী বিদ্যুতের জিএম বরাবর আবেদন পাঠায়ি তাদের সহযোগীতা চেয়েছিলাম। তারা আমাদের আবেদনে সাড়া দিয়ে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে তা সারানোর ব্যবস্থা করেছেন।

[৯] পল্লী বিদ্যুৎ কালীগঞ্জ জোনাল অফিসের ডিজিএম মো. কামরুজ্জমান জানান, যেহেতু এটা নড়কের কাজ তাই তারা আবেদনের প্রেক্ষিতে বিষয়টি আমলে নিয়ে দ্রুত কাজ করার জন্য ঠিকাদার নিয়োগ করেছেন। মঙ্গলবার থেকে শুরু হওয়া কাজের প্রথম দিনে ৩/৪টা খুঁটি সরানো হয়েছে। বাকীগুলো ৩/৪ দিনের মধ্যে হয়ে যাবে বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

[১০] উল্লেখ্য, বন্যা ও দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে বন্যা রক্ষা বাঁধের উপর নির্মিত এ সড়কটির সংস্কার ও বর্ধিত করণের উদ্যোগ নেয় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর। সড়কের প্রস্থ বাড়িয়ে ১৮ ফিট করা হয়। ২০২০ সালের ২০ জুলাই স্থানীয় সাংসদ ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ চুমকি সড়ক সংস্কার ও বর্ধিত করণ কাজ উদ্বোধন করেন। প্রায় ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কের কাজটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রবাল ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেডকে দেওয়া হয়। আর ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সড়কের মাঝে বিদ্যুতের একাধিক খুঁটি রেখেই সংস্কার কাজ শেষ করে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ হয়। এ প্রেক্ষিতে কর্তৃপক্ষ বিষয়টি আমলে নিয়ে সড়কে বিদ্যুতের খুঁটি সরানোর কাজ শুরু করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত