প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] জামার ভেতরে ফোন নিয়ে পরীক্ষার হলে তরুণী, অতঃপর ধরা

নিজেস্ব প্রতিবেদক: [২] জামার ভেতরে অ্যান্ড্রয়েড ফোন নিয়ে পরীক্ষার হলে বসেছিলেন তরুণী। পরীক্ষকের দেয়া প্রশ্নপত্র পাওয়ার ঠিক ৯ মিনিটের মাথায় মোবাইল বের করে প্রশ্নপত্রের ছবি তোলেন এই তরুণী এবং হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দেন একজনকে। হোয়াটসঅ্যাপে পাঠিয়ে দেয়ার কয়েক মিনিটের মাথায় প্রশ্নের সমাধানও চলে আসে হোয়াটসঅ্যাপে। কিন্তু পরে সেই উত্তরপত্র দেখে আর পরীক্ষা দেওয়া হয়নি তরুণীর। অবশেষে ধরা পড়ে যান তিনি।

[৩] রোববার দুপুর ১২টায় দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) এই ঘটনা ঘটে। এদিন ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষার দ্বিতীয় দিন ছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াজেদ ভবনে ‘বি ইউনিটের’ পরীক্ষা চলার সময়ে অসদুপায় অবলম্বন করায় ওই তরুণীকে আটক করা হয়। পরে তাকে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় সোপর্দ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মামুনুর রশিদ থানায় একটি অভিযোগ করেন। অভিযুক্ত ওই তরুণীর নাম তাসনিয়া আকতার খুশবু। তার বাড়ি দিনাজপুর সদর উপজেলার কমলপুর গ্রামে।

[৪] বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মামুনুর রশিদ বলেন, দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি ভবনে প্রায় সাত হাজার পরীক্ষার্থী অংশ নেন। ড. এম ওয়াজেদ ভবনের ৩০৫ নম্বর কক্ষে ওই তরুণী গোপনে মোবাইলে প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে বাইরে পাঠিয়েছিলেন। বিষয়টি প্রথমে অন্য পরীক্ষার্থীদের নজরে এলে তারা হল পরিদর্শক হিতেন্দ্র নাথকে জানান। পরে নারী পুলিশের সহায়তায় মুঠোফোনটি উদ্ধার করা হয় এবং ওই তরুণীকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়।

[৫] দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে অভিযোগ করেছে। মেয়েটি পুলিশের হেফাজতে আছেন। প্রাথমিক তদন্তে বিষয়টির সত্যতা পাওয়া গেছে। তার মুঠোফোনটিও জব্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া চলমান আছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

সর্বাধিক পঠিত