প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শর্টস পরে পরীক্ষার হলে ঢোকায় অপমানের শিকার হলেন ভারতের আসামের এক তরুণী

সাজিদ হাসান: [২] এমন পোশাকের জন্য পরীক্ষায় বসার অনুমতি মেলেনি জুবিলি তামুলী নামের ঐ শিক্ষার্থীর। শেষ পর্যন্ত একটি পর্দা দিয়ে পা ঢেকে পরীক্ষা দিতে হয় তাকে। বিবিসি

[৩] বুধবার ভারতের আসামে গিরিজানন্দ চৌধুরী ইনস্টিটিউট অব ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্সে (জিআইপিএস) এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরপরই ভারত জুড়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

[৪] ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, পরীক্ষা দিতে আসামের তেজপুর শহরে আসেন জুবিলি। এ সময় তার পরনে ছিলো শর্টস। পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশের সময় পরীক্ষার হলে দায়িত্বরত এক শিক্ষক তাকে বলেন যে, এই পোশাকে তিনি পরীক্ষা দিতে পারবেন না; পরীক্ষায় বসার জন্য তাকে পা ঢাকা প্যান্ট পরে আসতে হবে।

[৫] এতে জুবিলি প্রতিবাদ করলেও মেলে না পরীক্ষাকেন্দ্রে প্রবেশের অনুমতি। পরে পরীক্ষাকেন্দ্র থেকে কাঁদতে কাঁদতে বেরিয়ে এসে বিষয়টি তার বাবাকে জানান তিনি। সব শুনে তার বাবা তখনই ফুল প্যান্ট কেনার জন্য পোশাকের দোকানে ছুটে যান।

[৬] ফুল প্যান্ট নিয়ে ফিরে আসতেই তার বাবাকে জানানো হয়, সমস্যার সমাধান হয়েছে। পরীক্ষা কন্ট্রোলারের পদক্ষেপে তার মেয়েকে একটা পর্দা দিয়ে পা ঢেকে পরীক্ষা দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

[৭] এদিকে এ ঘটনাকে জুবিলি তার জীবনের সবচেয়ে অপমানজনক অভিজ্ঞতা বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, এ ধরনের আচরণ মেয়েদের মনোবল ও মর্যাদার ওপর খুব বাজে প্রভাব ফেলে। সবাইকে এ ব্যাপারে আরো সতর্ক হওয়া উচিৎ। সম্পাদনা: সাকিবুল আলম

সর্বাধিক পঠিত