প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কঠোর বিধিনিষেধে ১৯দিনে গ্রেপ্তার সাড়ে ৭ হাজার, জরিমানা সোয়া ২ কোটি টাকা

সুজন কৈরী: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত ২৩ জুলাই থেকে মঙ্গলবার পর্যন্ত বিধিনিষেধের ১৯দিনে অপ্রয়োজনে বাইরে বের হওয়ায় ৭ হাজার ৫৬৯ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। ডিএমপির ৮টি বিভাগের ৫১টি থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে ডিএমপি অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এই ১৯ দিনে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ডিএমপি ২ হাজার ৮৪৩ জনকে জরিমানা করেছে ৩১ লাখ ১১ হাজার ৯৩৫ টাকা। এছাড়া ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগ ৮ হাজার ২৭২ গাড়ির বিরুদ্ধে মামলা ও জরিমানা করেছে ১ কোটি ৯৩ লাখ ৯২ হাজার টাকা। মোবাইল কোর্ট ও ট্রাফিক বিভাগ মিলিয়ে মোট জরিমানা করা হয়েছে ২কোটি ২৫ লাখ ৩ হাজার ৯৩৫ টাকা।

ডিএমপির মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) ইফতেখায়রুল ইসলাম বলেন, সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে যারা যৌক্তিক কারণ ছাড়া বাইরে বের হয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে পুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়েছে।

ডিএমপির জনসংযোগ বিভাগ জানিয়েছে, বিধিনিষেধ অমান্য করায় ২৩ জুলাই গ্রেপ্তার হয় ৪০৩ জন। মোবাইল কোর্টে ২০৩ জনকে ১ লাখ ২৭ হাজার ২৭০ টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ৪৪১টি গাড়ির বিরুদ্দে ১০ লাখ ৬০ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করে। ২৪ জুলাই ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১৩৭ জনকে ৯৫ হাজার ২৩০টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ট্রাফিক বিভাগ ৪৪১টি গাড়িকে ১০ লাখ ৮৩ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। ডিএমপির অর্ডিন্যান্সে ৩৮৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

২৫ জুলাই সড়ক পরিবহন আইন অনুযায়ী ৫২১টি গাড়িকে জরিমানা করা হয়েছে ১২ লাখ ৭২ হাজার টাকা। গ্রেপ্তার করা হয় ৫৮৭ জনকে। মোবাইল কোর্টে ২৩৩ জনকে ১ লাখ ৯৫০ টাকা জরিমানা করা হয়। ২৬ জুলাই ডিএমপি গ্রেপ্তার করে ৫৬৬ জনকে। মোবাইল কোর্টে ১৬৪ জনকে ১ লাখ ২৬ হাজার ২০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ডিএমপি ট্রাফিক বিভাগ ৪৪৩টি গাড়ি ও চালককে ১০ লাখ ২১ হাজার টাকা জরিমানা করে।

২৭ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় ৫৫৫ জনকে। মোবাইল কোর্টে ২৩৬ জনকে ৪ লাখ ৮৩ হাজার ৯৭৫ টাকা জরিমানা করা হয়। ট্রাফিক বিভাগ ৪৯৭টি গাড়িকে ১১ লাখ ৭৩ হাজার টাকা জরিমানা করে। ২৮ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় ৫৬২ জনকে। মোবাইল কোর্টে ২০৮ জনকে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ট্রাফিক বিভাগ ৪৮৯টি গাড়িকে ১১ লাখ ৩৩ হাজার টাকা জরিমানা করে।

২৯ জুলাই গ্রেপ্তার করে ৫৬৮ জনকে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২০৬ জনকে ৩ লাখ ৪০ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ট্রাফিক বিভাগ ৪৩১টি গাড়িকে ৯ লাখ ৯৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করে। ৩০ জুলাই গ্রেপ্তার করা হয় ৩৮১জনকে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ১০৮ জনকে ৬৭ হাজার ৯৪০ টাকা জরিমানা করা হয়। ট্রাফিক বিভাগ ৩২১টি গাড়িকে ৮ লাখ ১৭ হাজার টাকা জরিমানা করে। ৩১ জুলাই গ্রেপ্তার করা ৪৮১ জনকে। মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২০২ জনকে ২ লাখ ৬ হাজার ৭১০ টাকা জরিমানা করা হয়। ট্রাফিক বিভাগ ৪৪০টি গাড়িকে ১০ লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করে।

১ আগস্ট গ্রেপ্তার করা হয় ৩০৩জনকে। মোবাইল কোর্টে ১০৩ জনকে ১ লাখ ১৬ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ১৮৩টি গাড়িকে ৪ লাখ ৪৫ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করেছে। ২ আগস্ট গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৩৪৫জনকে। মোবাইল কোর্টে ১৩৫ জনকে ১ লাখ ৮৯হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৩৬৬টি গাড়িকে ৮ লাখ ২৪ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করেছে। ৩ আগস্ট ৩৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মোবাইল কোর্টে ১২০ জনকে ১ লাখ ৭৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ট্রাফিক বিভাগ ৫৩২ গাড়ির বিরুদ্ধে জরিমানা করেছে ১ লাখ ১২ হাজার ৩০০ টাকা। ৪ আগস্ট ৪২৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ডিএমপি। মোবাইল কোর্টে ১৭৯ জনকে ৩ লাখ ৭৬ হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ট্রাফিক বিভাগ ৪০৭ টি গাড়িকে ৯ লাখ ৭১ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।

৫ আগস্ট ডিএমপি গ্রেপ্তার করেছে ৩৮৫ জনকে। মোবাইল কোর্টে ১২৬ জনকে ২ লাখ ৪৪ হাজার ৮৫০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৫৩৮ টি গাড়িকে ১২ লাখ ২৫ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করেছে। ৬ আগস্ট ডিএমপি গ্রেপ্তার করেছে ২৩৯ জনকে। মোবাইল কোর্টে ৭৪ জনকে ৯০ হাজার ৪১০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ২৯৫টি গাড়িকে ৬ লাখ ৯৯ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

৭ আগস্ট ৩৪২ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। মোবাইল কোর্টে ১৭১ জনকে ৪৮ হাজার ৪৫০টাকা জরিমানা করা হয়েছে এবং ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৪৯২টি গাড়িকে ১০ লাখ ৯০ হাজার ৫০০টাকা জরিমানা করেছে। ৮ আগস্ট ২৪১ জন গ্রেপ্তার হয়েছে। মোবাইল কোর্টে ৮৪ জনকে ৩৭ হাজার ৪৫০টাকা জরিমানা এবং ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৫৩৭টি গাড়িকে ১২ লাখ ১৮ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

৯ আগস্ট ডিএমপি ২৫১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে এবং মোবাইল কোর্টে ১০২ জনকে ৭৪ হাজার ১৫০ টাকা জরিমানা করেছে। এছাড়া ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৪৬৮টি গাড়িকে ১০ লাখ ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে।

সর্বশেষ মঙ্গলবার ডিএমপি গ্রেপ্তার করেছে ১৯৮ জনকে। মোবাইল কোর্টে ৫২ জনকে ৪৭ হাজার ২৫০ টাকা জরিমানা এবং ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ৫১০টি গাড়িকে ১১ লাখ ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত