প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কোরিয়ায় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর পাঁচ দিন ব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [২] শুক্রবার সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে গাংনামেরথিও গ্যালারিতে কোরিয়ান কালচার অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীটির আয়োজন করা হয়।

[৩] দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম এবং কোরিয়া কালচার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট জে-মিন জং যৌথভাবে প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন।

[৪] প্রদর্শনীতে বঙ্গবন্ধুর ওপর অন্যান্য প্রকাশনা প্রদর্শন এবং ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও সম্প্রচার করা হয়। এছাড়া, বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর নির্মিত ডকুমেন্টারি প্রদর্শিত হয়। প্রদর্শনীটি ১৩ জুলাই পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

[৫] স্বাগত বক্তব্যে দক্ষিণ কোরিয়ায় বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম বলেন, বাংলাদেশে ও আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে বঙ্গবন্ধু গণতন্ত্র, শান্তি এবং ধর্ম নিরপেক্ষতার এক মূর্তপ্রতীক ছিলেন। তিনি মানবতা, জনগণের ক্ষমতায়ন এবং আর্থ-সামাজিক মুক্তির অগ্রদূত ছিলেন। যা প্রদর্শনীতে আলোক চিত্র গুলোতেও প্রতিফলিত হয়েছে।

[৬] এই প্রদর্শনী দক্ষিণ কোরিয়ার বন্ধু প্রতিম জনগণকে বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর রূপকল্প, আদর্শ ও পরম্পরা সম্পর্কে জানতে অনু প্রাণিত করবে বলে রাষ্ট্রদূত আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

[৭] কোরিয়া কালচার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট জে-মিন জং বলেন, বঙ্গবন্ধু তাঁর দেশ ও জনগণের গণতন্ত্র, শান্তি ও মানবাধিকার নিশ্চিত করবার জন্য নপীড়কদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেছেন। তাঁর অসামান্য অবদান ছাড়া বাংলাদেশের পক্ষে স্বাধীনতা অর্জন করা সম্ভব হতো না।

[৮] বাংলাদেশ ও দক্ষিণ কোরিয়ার ইতিহাস ও সাংস্কৃতিক সাদৃশ্য তুলে ধরে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা সম্পর্কে জানার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।

[৯] অনুষ্ঠানে কোরিয়ার সুশীল সমাজর, গণ-মাধ্যম কর্মী এবং প্রবাসী বাংলাদেশীরা অংশগ্রহণ করেন। আগত অতিথিদের বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী’র কোরিয়ান সংস্করণ উপহার দেওয়া হয় এবং বাংলাদেশী খাবারে আপ্যায়ন করা হয়।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত