প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ২০ বছরে ঢাকার তাপমাত্রা বাড়বে ৫ ডিগ্রি: আন্তর্জাতিক গবেষণা

মিনহাজুল আবেদীন: [২] আন্তর্জাতিক এক গবেষণা বলছে, বাংলাদেশের বিভিন্ন শহরে যে হারে তাপমাত্রা বাড়ছে সেই ধারা অব্যাহত থাকলে রাজধানী ঢাকাসহ পাঁচটি বড় শহর আগামী কয়েক বছরে বসবাসের অনুপযোগী হয়ে উঠবে।

[৩] গবেষকরা বলছেন, বর্তমান এই প্রবণতা নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও রাজশাহী এই চারটি জেলা শহরে রাত ও দিনের তাপমাত্রার পার্থক্য বা তারতম্য কমে আসবে। ফলে সবসময় গরম অনুভূত হবে।

[৪] এদিকে গবেষণা বলছে, গত ২০ বছরে রাজধানী ঢাকার তাপমাত্রা বেড়েছে প্রায় তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস, যেখানে সারা বিশ্বে তাপমাত্রা-বৃদ্ধিকে দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে রাখার জন্য চেষ্টা চলছে।

[৫] মঙ্গলবার বিবিসি বাংলায় কার্টিন বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞানী এবং স্কুল অব আর্থ এন্ড প্ল্যানেটারি সায়েন্স বিভাগের শিক্ষক ড. আশরাফ দেওয়ান বলেন, এভাবে তাপমাত্রা বাড়তে থাকলে আগামী পাঁচ বছরেই শহরগুলো বসবাসের জন্য অযোগ্য হয়ে যাবে। পরিবেশগত সমস্যা তৈরি হবে। এইজন্য শহরগুলোকে ঠাণ্ডা রাখার জন্য প্রচুর পরিমাণে এয়ার কন্ডিশনার বা এসি ও পানি ব্যবহার করার প্রয়োজন হবে। অর্থাৎ শক্তি-সম্পদ ও পানি সম্পদের ওপরেও চাপ অত্যাধিক পরিমাণে বেড়ে যাবে।

[৬] তথ্য মতে, ঢাকা শহরের দিনের তাপমাত্রা ২০ বছরে গ্রামাঞ্চলের তাপমাত্রার তুলনায় ২ দশমিক ৭৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পেয়েছে। একইভাবে বন্দরনগরী চট্টগ্রামে বেড়েছে ১ দশমিক ৯২ ডিগ্রি, খুলনায় ১ দশমিক ২৭, সিলেটে ১ দশমিক ১, রাজশাহীতে বেড়েছে সবচেয়ে কম শূন্য দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

[৭] এদিকে বিজ্ঞানীরা বলছেন, জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সারা বিশ্বেই বায়ুমন্ডলের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশেও একই কারণে সেটা বাড়ছে। কিন্তু এরজন্য জলবায়ুর পরিবর্তন যতোটা দায়ী, তার চেয়েও বেশি দায়ী অপরিকল্পিত নগরায়ণ, নগরের বিভিন্ন সংস্থার মধ্যে সমন্বয়ের অভাব এবং দুর্বল পরিবেশ ব্যবস্থাপনা। সম্পাদনা: রাশিদ

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত