প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভারতে বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের দায়ে ৬ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] পালাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ প্রধান আসামি টিকটক হৃদয়সহ ২।

[৩] আসামিদের বাংলাদেশে নিয়ে আসার কথা জানালো পুলিশ।

[৪] ভারতীয় পুলিশ বলছে, আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়। ওই ঘটনায় পুলিশ টিকটক হৃদয় বাবু ও এক তরুণীসহ পাঁচ বাংলাদেশিকে গ্রেফতার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে ঢাকার হাতিরঝিল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ডেকান ক্রনিক্যাল

[৫] শুক্রবার সকালে পুলিশের হেফাজত থেকে পালানোর চেষ্টা করলে টিকটক হৃদয় বাবু ও সাগর গুলিবিদ্ধ হয়। এর আগে, বৃহস্পতিবার রাতে টিকটক হৃদয় বাবু, সাগর, মোহাম্মদ বাবা শেখ ও হাকিল নামে চার তরুণকে গ্রেফতার করে ব্যাংগালুরু পুলিশ। গ্রেফতার নারীর পরিচয় জানানো হয়নি। ন্যাশনাল হেরাল্ড

[৬] ভারতীয় পুলিশ বলছে, গ্রেফতার সবাই অবৈধভাবে ভারতে গেছেন। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে যে তরুণীকে পৈশাচিক নির্যাতন করা হয়েছে, তাকেও এই চক্রটি অবৈধভাবে ভারতে নিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করেছিল বলে জানিয়েছে পুলিশ। নির্যাতনের শিকার ওই তরুণীর সন্ধান এখনো পাওয়া যায়নি। এনডিটিভি

[৭] তরুণীকে যৌন নির্যাতন ও ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ঘটনার মূলহোতা রিফাতুল ইসলাম হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়সহ অভিযুক্তদের মধ্যে বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনবে বাংলাদেশ পুলিশ। তাদেরকে ফিরিয়ে আনার কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।

[৮] তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. শহিদুল্লাহ বলেন, বেঙ্গালুরু পুলিশকে বার্তা দেয় বাংলাদেশ পুলিশ। রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় করা মানবপাচার প্রতিরোধ দমন আইন ও পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় বাংলাদেশি আসামিদের দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

সর্বাধিক পঠিত