প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিয়ে হলেই বর-কনের জন্য বিশেষ ‘গিফট বক্স’ নিয়ে হাজির পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা

ডেস্ক নিউজ: ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলায় কোথায় কখন কার বাড়িতে বিয়ে হচ্ছে তার খোঁজ-খবর রাখছেন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের সংশ্লিষ্ট লোকজন। দাওয়াত না থাকলেও সেখানে গিয়ে হাজির হচ্ছেন তারা। আর এ ঘটনায় আলোচনা হচ্ছে সর্বত্রই।

গৌরীপুর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. কামাল হোসেন জানান, সারা দেশে অধিদফতর থেকে একটি পাইলট প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। তার মধ্যে ময়মনসিংহ জেলায় গৌরীপুর উপজেলাকে বেছে নেয়া হয়েছে। গত এপ্রিল মাস থেকে এ উপজেলায় কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

গত মঙ্গলবার (১৮ মে) পর্যন্ত প্রায় শতাধিক বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। আর এসব বিয়ের খোঁজ খবর রাখছেন মাঠ পর্যায়ের কর্মীরা। তাদের কাছে পূর্ব থেকেই কিছু গিফট বক্স দেয়া আছে। ওই গিফট বক্সগুলো নিয়ে বর-কনের হাতে পৌঁছে দিচ্ছে। উপহার বক্সে থাকছে একটি ঘড়ি, সম্মাননা কার্ড, বর ও কনের জন্য আলাদা জন্মনিয়ন্ত্রণ সামগ্রী, সুখি দাম্পত্য জীবন সর্ম্পকিত মোটিভেশানাল পুস্তক।

তিনি বলেন, কম বয়সে বিয়ের কুফল, পরবর্তী সময়ে সন্তান নেয়ার সময়, মাতৃমৃত্যু কমানোসহ প্রয়াজনীয় জন্মনিয়ন্ত্রণ ব্যবহার ইত্যাদি নানাবিধ পরামর্শ রয়েছে পুস্তুকটিতে। এতে করে শুরুতেই নব দম্পত্তিরা নিজেরাই নিজেদেরকে বুঝে নেয়ার সুযোগ পাবে। আগে নবদম্পত্তিরা এসব বিষয়ে লজ্জাবোধ করতেন। এখন তাদেরকে এই পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে মোটিভেশন করা হবে। এক বছর পর ওই সব দম্পত্তিদের কাছে গিয়ে খোঁজ নেয়া হবে কতটুকু সফলতা আসছে। তবেই প্রকল্প নিয়ে সুদূর পরিকল্পনা করা হবে।

জানা যায়, পরিবার পরিকল্পনা অধিদফতর এবং বেসরকারি সংস্থা ‘পাথফাইন্ডার ইন্টারন্যাশনালের কারিগরি ও অর্থিক সহায়তায় সুখি পরিবার’ তত্ত্বাবধানে গৌরীপুরে এই পাইলট প্রোগ্রাম বাস্তবায়ন করছে অধিদফতরের ফিল্ড সার্ভিস ডেলিভারি প্রোগ্রাম। মূলত সীমিত সন্তান গ্রহণকেই পরিবার পরিকল্পনা বলা হলেও এই কর্মসূচিতে রয়েছে পূর্ণাঙ্গ আধুনিক সুখি জীবন-যাপন নিশ্চিত করার জন্য কারিগরি শিক্ষাদান। সূত্র: ডেইলি বাংলাদেশ, কালের কণ্ঠ

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত