প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আল-আকসা মসজিদে হামলা, ওআইসির বৈঠকে বাংলাদেশের নিন্দা

কূটনৈতিক প্রতিবেদক: [২] জেরুজালেমের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর হামলার ঘটনায় ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা ওআইসি মঙ্গলবার এক জরুরি ভার্চুয়াল বৈঠক আহ্বান করে।

[৩] বৈঠকে ওআইসির স্থায়ী প্রতিনিধি ও সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী আল-আকসা মসজিদ ও গাজা উপত্যাকায় ফিলিস্তিনীদের ওপর বর্বরোচিত হামলা ও হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা জানান।

[৪] রাষ্ট্রদূত বলেন, আমরা মনে করি ফিলিস্তিনীদের তাঁদের জমি ও বাড়িঘর থেকে উচ্ছেদ ও নির্মূল করা ইসরাইলী দখলদার বাহিনীর একটি নিয়মিত প্রচেষ্টা হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইসরায়েলি বাহিনীর এ জাতীয় নির্মম হামলা ফিলিস্তিনীদের অধিকার ও মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রক্রিয়াকে ক্ষুণ্ন করছে।

[৫] জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, আমরা মনে করি দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীকে এ ধরণের কাজ থেকে বিরত রাখার জন্য এটাই যথেষ্ট নয়। আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অবিলম্বে এবং অদূর ভবিষ্যতে ইসরায়েলকে এ জাতীয় হামলা, নৃশংসতা ও উস্কানিমূলক পদক্ষেপ থেকে বিরত রাখতে বাস্তবভিত্তিক ও সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানাই।

[৬] আমরা ওআইসিকে এ বিষয়ে জাতিসংঘ, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তাঁদের প্রচেষ্টা দ্বিগুণ করার আহ্বান জানাই।

[৭] বাংলাদেশ ফিলিস্তিনীদের সঙ্গে সবসময়ই একাত্মতা পোষণ করে। তাঁদের ভুমিতে তাঁদের ন্যায্য অধিকারের প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতি পুনরায় প্রকাশ করছি।

[৮] বাংলাদেশ জাতিসংঘে গৃহীত প্রস্তাবসমূহ, আরব পিস ইনিশিয়েটিভ এবং কোয়ার্টেট রোড ম্যাপের আলোকে ফিলিস্তিন সমস্যার সমাধান প্রক্রিয়াকে সমর্থন করে।

[৯] বৈঠকে বিভিন্ন দেশের স্থায়ী প্রতিনিধিরা ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর এ হামলার তীব্র নিন্দা করেন এবং তা অবিলম্বে বন্ধের আহ্বান জানান। পরবর্তীতে সর্বসম্মতিক্রমে একটি যৌথ ঘোষণাপত্র গৃহীত হয়। সম্পাদনা: তাপসী রাবেয়া

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত