প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সবাইকে নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দিয়ে শেষ হবে আইপিএল

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] বিশ্বে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হটস্পট এখন ভারত। সেখানে দিনকে দিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্ত আর মৃতের সংখ্যা। এই টালমাটাল পরিস্থিতিতে দেশটির সঙ্গে বিমান চলাচল ব্যবস্থা বন্ধ করে দিয়েছে ব্রিটেন ও অস্ট্রেলিয়াসহ একাধিক দেশ। তাতে করে টুর্নামেন্ট শেষে দেশে ফেরা নিয়ে অনিশ্চয়তায় কয়েকজন খেলোয়াড় আইপিএলের মাঝপথে বিদায় নিয়েছেন। এমন সংশয়ের মধ্যে বিসিসিআই আইপিএলের আট দলকে আশ্বস্ত করেছে, জৈব সুরক্ষা বলয়ে আপনারা একদমই নিরাপদ।

[৩] আট দলের উদ্দেশ্যে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বলেছে, এবার শুধু তারা জেতার জন্য খেলছে না, আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ কিছুর জন্য মানবতা। প্রত্যেকের সুরক্ষাকে এবার প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে বলে তারা ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে নিশ্চয়তা দিয়েছে। বিসিসিআই নিশ্চিত করেছে, জৈব সুরক্ষা বলয় আরও শক্তিশালী করা হচ্ছে। সংক্রমণের বিস্ফোরণ চলতে থাকলেও ৩০ মে পর্যন্ত নির্ধারিত এই টুর্নামেন্ট তাই বন্ধ করা হবে না নিশ্চিত করেছে বোর্ড।

[৪] জৈব সুরক্ষা বলয়ে ক্লান্তির কারণে আগেভাগে রাজস্থান রয়্যালসের লিয়াম লিভিংস্টোন আইপিএল খেলেননি। তার সতীর্থ অ্যান্ড্রু টাইও ফিরে গেছেন অস্ট্রেলিয়ায়। চেন্নাই সুপার কিংসের স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন নিয়েছেন বিরতি। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর কেন রিচার্ডসন ও অ্যাডাম জাম্পাও ব্যক্তিগ কারণে সরে দাঁড়িয়েছেন। বিভিন্ন দলের বিদেশি খেলোয়াড়দের দেশে ফেরার অনিশ্চয়তা এই পরিস্থিতি তৈরি করেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

[৫] মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল বোর্ডের অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাহী হেমাং আমিন প্রত্যেক দলকে ই-মেইলে আশ্বস্ত করেছেন, তারা জৈব সুরক্ষা বলয় আরও শক্তিশালী করতে যাচ্ছেন। আমিন লিখেছেন, ভারত যখন স্বাস্থ্যব্যবস্থায় কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে, তখন আমি আপনাদের কাছে এই লেখা লিখছি। ভারতের এই উদ্বেগজনক পরিস্থিতিতে কিছু ক্রিকেটার সরে দাঁড়িয়েছে। আমরা তাদের সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করি এবং সমর্থন থাকবে সবসময়। একই সঙ্গে আমরা আপনাদের আশ্বস্ত করছি যে বলয়ের মধ্যে আপানারা একদম নিরাপদ।

[৬] মঙ্গলবার ২৭ এপ্রিল সকালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ক্রিস লিন টুর্নামেন্ট শেষে দেশে ফেরার জন্য চার্টার্ড ফ্লাইটের ব্যবস্থা করতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কাছে অনুরোধ করেছেন। তার মতো উদ্বেগে থাকা ক্রিকেটারদের আশ্বস্ত করেছেন আমিন, আমরা বুঝতে পারছি আপনারা দুশ্চিন্তার মধ্যে আছেন যে টুর্নামেন্ট শেষে কীভাবে দেশে ফিরবেন। এটা স্বাভাবিক।

[৭] আমরা আপনাদের কোনও দুশ্চিন্ত না করার অনুরোধ করছি। আপনারা গন্তব্যে যেন নির্বিঘ্নে পৌঁছাতে পারেন বিসিসিআই সেজন্য সবকিছু করবে। বিসিসিআই এজন্য সরকারি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করছে। আপনারা নিশ্চিত থাকুন যে বিসিসিআইর জন্য টুর্নামেন্ট ততক্ষণ শেষ হবে না যতক্ষণ পর্যন্ত আপনাদের নিরাপদে বাড়িতে পৌঁছে দিতে না পারে। – জি নিউজ / ক্রিকইনফো

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত