প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনার ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই পরপর জনসভা মোদির

ডেস্ক রিপোর্ট : ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের আট ধাপে চলা ভোটের মধ্যে রাজ্যে হুহু করে বাড়ছে করোনা। এ নির্বাচনের এখনও চার ধাপের ভোট বাকি। এ উপলক্ষে রাজনৈতিক দলগুলো সমানে চালাচ্ছে নির্বাচনী প্রচার, সভা ও রোড শো। চার দফার ভোট উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ছয়টি সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে বিজেপি। এদিকে করোনার ঊর্ধ্বগতির কারণে শেষ তিন ধাপের ভোট গ্রহণ একসঙ্গে করার প্রস্তাব পাওয়ার পর তা প্রত্যাখ্যান করেছে নির্বাচন কমিশন। এ কারণে নির্বাচন কমিশনের তীব্র সমালোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিকে, বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নির্বাচনী প্রচারে ২৪ ঘণ্টার নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টা থেকে শুক্রবার রাত ৮টা পর্যন্ত কোনো প্রচার কর্মসূচিতে অংশ নিতে পারবেন না তিনি। কমিশন সূত্র জানায়, শীতলকুচিতে গুলিতে পাঁচজনের মৃত্যু নিয়ে দিলীপের বিরূপ মন্তব্যের জেরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বিধানসভা নির্বাচনে প্রচারের জন্য নরেন্দ্র মোদিসহ বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা ঘন ঘন পশ্চিমবঙ্গ সফর করছেন। আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতিদিন একাধিক সভা ও রোড শো করে চলেছেন। এতে রাজ্যে দিন দিন বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। বৃহস্পতিবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর জানায়, বুধবার এক দিনে রাজ্যে পাঁচ হাজার ৮৯২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বৃহস্পতিবার সামশেরগঞ্জের কংগ্রেস প্রার্থী রেজাউল হক মারা গেছেন। এরপর ওই কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তা ছাড়া মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর আসনের আরএসপি প্রার্থী প্রদীপ নন্দী, জলপাইগুড়ির তৃণমূলের প্রদীপ কুমার বর্মাও, করিমপুরের বিজেপির সমরেন্দ্রনাথ ঘোষ, নকশালবাড়ির বিজেপির আনন্দ বর্মণসহ আরও কয়েকটি আসনের প্রার্থী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

এমন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার নির্বাচনী পর্যবেক্ষকদের সঙ্গে ভার্চুয়ালি বৈঠক করেন নতুন নির্বাচন কমিশনার সুশীল চন্দ্র।

পরে কমিশনের পক্ষে জানানো হয়, ‘ষষ্ঠ, সপ্তম ও অষ্টম দফার নির্বাচন একসঙ্গে করতে গেলে যত বাহিনীর প্রয়োজন, তা বাংলায় নেই।’ এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘অতিমারির মধ্যে কমিশনের আট দফা ভোট করার সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করছি। বর্তমানে যেভাবে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে, তাতে আমি কমিশনকে অনুরোধ করছি, বাকি দফার ভোট এক দফাতেই করা হোক।’

এর মধ্যে আজ শুক্রবার সর্বদলীয় বৈঠক ডেকেছে কমিশন। বাকি চার দফার ভোট গ্রহণ নিয়ে আলোচনা করতে এ সভা ডাকা হয়েছে। কমিশনের পক্ষে রাজ্যের ১০টি রাজনৈতিক দলকে চিঠি দিয়ে এ কথা জানানো হয়েছে।

এ নির্বাচনের পঞ্চম দফার ভোট গ্রহণ আগামীকাল শনিবার। এদিন পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোল ও দক্ষিণ দিনাজপুরের গঙ্গারামপুরে মোদির সমাবেশ রয়েছে। আজ কমিশন প্রচার নিয়ে নতুন কোনো বিধিনিষেধ আরোপ করে কিনা, সেদিকে নজর রাখার পাশাপাশি ওই দুই সমাবেশের প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। এরপর মোদির সফরসূচি অনুযায়ী আরও চারটি সমাবেশের কথা রয়েছে। দলীয় সূত্র জানায়, বাকি দফাগুলোর ভোটের আগে মোদি ছাড়াও অমিত শাহ, রাজনাথ সিং, জেপি নাড্ডার একাধিক কর্মসূচি রয়েছে।

মমতার রোড শোতে জয়া বচ্চন :গতকাল বৃহস্পতিবার বেলেঘাটা থেকে জোড়াসাঁকো পর্যন্ত রোড শো করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এতে অংশ নেন তৃণমূল প্রার্থীরা। এদিন এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে আলাদা করে নজর কেড়েছেন জয়া বচ্চন। বেলেঘাটা থেকে কাঁকুড়গাছি পর্যন্ত এদিন তৃণমূলের রোড শোতে দেখা গেছে প্রভাবশালী নেত্রী জয়াকে। পরে আবার সদানন্দ পার্ক থেকে বউবাজার পর্যন্ত মিছিলে হাঁটেন এই সাবেক অভিনেত্রী। জয়া বচ্চন জনতার উদ্দেশে বলেন, ‘রাজ্যে কোনো পরিবর্তন চাই না। মমতার সরকারকে চাই। তার সরকারই আসুক।’ সমকাল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত