প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রাজিল ধরন আরও ভয়ংকর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নতুন এক গবেষণায় বলা হয়েছে, ব্রাজিলের করোনার নতুন ধরনটি আরও ভয়ংকর রূপ নিতে পারে। এতে বলা হয়েছে, এই ধরনটি ক্রমাগত পরিবর্তিত হচ্ছে এবং এটি টিকাপ্রতিরোধী হয়ে উঠতে পারে। ব্রাজিলের মানাউস শহরের জনস্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট সম্প্রতি এ গবেষণা চালিয়েছে। দেশটিতে পাওয়া করোনার ধরনটির নাম ‘পি১’।\হগবেষণাপত্রের অন্যতম লেখক ফেলিপে নাভেচা বলেন, ‘আমরা মনে করছি, এই পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে ভাইরাসটি অ্যান্টিবডির প্রতিক্রিয়া থেকে রক্ষা পাওয়ার চেষ্টা করছে।’ তিনি আরও বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া করোনার ধরনটির মতোই মিউটেশন লক্ষ্য করা যাচ্ছে পি১ ধরনটিতে। দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া করোনাভাইরাসের ধরনটির ক্ষেত্রে বেশ কিছু টিকা কম কার্যকর বলে আলোচনা আছে। গবেষণায় আরও দেখা গেছে, ভাইরাসের পি১ ধরনটি প্রকৃত ধরনটির তুলনায় আড়াইগুণ বেশি ছোঁয়াচে। অর্থাৎ ব্রাজিলে পাওয়া করোনার ধরনটি দ্রুত ছড়াতে\হসক্ষম এবং একই সঙ্গে অ্যান্টিবডির বিরুদ্ধে এর সহনশীলতাও বেশি।

এদিকে ব্রাজিলে করোনা পরিস্থিতির এতটাই অবনতি হয়েছে যে, কভিডে মৃতদের সৎকারই কঠিন হয়ে পড়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে কভিডে ১৩ শতাধিক শিশু মারা গেছে। কভিডে এটাই কোনো দেশে সর্বোচ্চ শিশু মৃত্যু। ডক্টরস উইদাউট বর্ডার্স বলেছে, কভিডে ব্রাজিলে মানবিক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। সেখানে এখন পর্যন্ত তিন লাখ ৬০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছে এ মহামারিতে।\হভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় দুই লাখের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এক দিনে দেশটিতে এটাই সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ৪০ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। ২ এপ্রিল থেকে বিশ্বের একক কোনো দেশ হিসেবে ভারতে সবচেয়ে বেশি মানুষ কভিডে আক্রান্ত হচ্ছে।\হভারতে গতকাল বুধবার এক হাজার ৩৮ জন করোনায় মারা গেছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা এক লাখ ৭৩ হাজার ১২৩ জনে পৌঁছল। গতকাল টানা পাঁচ দিনের মতো দেড় লাখের বেশি আক্রান্ত হয়েছে ভারতে। এ ছাড়া টানা ৯ দিন আক্রান্ত ছিল এক লাখের বেশি। দেশটিতে মাত্র ১০ দিনের দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে। হাসপাতালে কভিড রোগীদের শয্যার তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে।\হঅবিশ্বাস্য গতিতে করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়তে থাকায় আগামী এক সপ্তাহের কারফিউ জারি করেছে রাজধানী নয়াদিল্লির প্রাদেশিক সরকার।

আজ শুক্রবার থেকে এই কারফিউ শুরু হয়ে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত কার্যকর থাকবে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল গতকাল এ ঘোষণা দিয়েছেন।\হভারতের পাশাপাশি পাকিস্তানেও করোনা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বুধবার সেখানে ১৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত বছরের জুনের পর দেশটিতে এক দিনে এটিই সর্বোচ্চ মৃত্যু। পাকিস্তানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, বুধবার দেশটিতে ৪৮ হাজার ৯২টি নমুনা পরীক্ষা করে চার হাজার ৬৮১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়ে সাত লাখ ৩৪ হাজার ৪২৩ জন হয়েছে। এর মধ্যে মারা গেছে ১৫ হাজার ৭৫৪ জন।\হইউরোপে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কভিডে মৃত্যু ১০ লাখ ছাড়িয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এ মহাদেশে প্রতি মিনিটে ১৬০ জন কভিড রোগী শনাক্ত হচ্ছে। এদিকে বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ৩০ লাখের কাছাকাছি পৌঁছেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টা পর্যন্ত এ মহামারিতে প্রাণহানি ২৯ লাখ ৯৪ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে ১৩ কোটি ৯১ লাখে। সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি ও দ্য ডন।

সর্বাধিক পঠিত