প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চট্টগ্রামের ডবলমুরিং এলাকায় জোর করে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করার অপরাধে ১জন গ্রেপ্তার

রাজু চৌধুরী : ফ্ল্যাটে আটকে রেখে জোরপূর্বক দেহব্যবসা করানোর অপরাধে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে চট্টগ্রাম ডবলমুরিং থানা পুলিশ এবং উদ্ধার করা হয়েছে ২ কিশোরী ভিকটিমকে।
সোমবার ৮ ফেব্রুয়ারি পুলিশ জানায়, ডবলমুরিং থানাধীন মিস্ত্রিপাড়াস্থ ফ্ল্যাট বাসায় উঠতি বয়সী কিশোরীদের নানা কৌশলে ফ্ল্যাটে এনে তারপর আটকে রেখে দেহব্যবসা করতে বাধ্য করার অপরাধে মোঃ হাসান(২৬) নামে ১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয় তবে পলাতক রয়েছে বেলাল হোসেন (৪৫), মোসলে উদ্দিন সোহাগ (২৭), এবং বেলাল (২৫) নামে আরও তিনজন।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টিম ডবলমুরিং ও চাঁন্দগাঁও থানা পুলিশের এই যৌথ অভিযান চালানো হয়।ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মহসীন জানান, একটি নিখোঁজ ডায়েরির তদন্তে নেমে খোঁজ পাওয়া যায় এই দেহ ব্যবসায়ী চক্রের। আসামী বেলাল (২৫) বাদীর ছোট বোন এর সাথে প্রেমের অভিনয় করে কৌশলে চাকুরীর প্রলোভন দেখিয়ে গত ০২ ফেব্রুয়ারি চাঁন্দগাঁও এলাকা থেকে মিস্ত্রিপাড়া নিয়ে এসে আরেক বেলাল হোসেন (৪৫) এর নিকট বিক্রয় করে দেয়। ওসি মহসীন বলেন, ০১নং আসামী বেলাল হোসেন (৪৫) এই দেহ ব্যবসা চক্রের মূল হোতা। আটককৃত মোঃ হাসান(২৬) ঘরের দায়িত্বে ছিল, সে ঘরে কিশোরীদের আটক রেখে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করত। উঠতি বয়সী কিশোরীদেরকে অন্যান্য আসামীদের মাধ্যমে সংগ্রহ করে দেহ ব্যবসা করানো মূল হোতা বেলালের একমাত্র পেশা। তার বিরুদ্ধে একাধিক মানব পাচার আইনের মামলা আছে বলেও জানান ওসি।
পলাতক আসামীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে। এ সংক্রান্তে ডবলমুরিং মডেল থানায় মানব পাচার আইনে মামলা রুজু করা হয়।

Attachments area

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত