প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বে ২০ কোটি গ্রাহক নেটফ্লিক্সের

রাশিদ রিয়াজ : কোভিড লকডাউনে গ্রাহককে সহজেই ধরনে পেরেছে কোম্পানিটি। প্রযুক্তিখাতে প্রথম প্রধান কোম্পানি হিসেবে চতুর্থ প্রান্তিকে আরো সাড়ে ৮ মিলিয়ন গ্রাহককে টানতে পেরেছে নেটফ্লিক্স। ফলে বিশ্বে এর মোট গ্রাহকের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২শ মিলিয়ন। গত বছর চতুর্থ প্রান্তিকে নেটফ্লিক্স আয় করেছে ৬.৬৪ বিলিয়ন ডলার। এর আগের বছর একই সময়ে এ আয় ছিল ৫.৪ বিলিয়ন ডলার। তবে বিশ্লেষকদের দেওয়া আয়ের পূর্বাভাসের চেয়ে তা কিছুটা কম। সিএনবিসি

নেটফ্লিক্সের বিনিয়োগকারীদের এক চিঠিতে কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে ২০২০ সাল ছিল অবিশ্বাস্য এক কঠিন বছর। অনেক পরিবার অসাধারণ ক্ষতির মুখে পড়েছে। নতুন স্বাস্থ্য বিধিতে এর আগে কখনো বিশাল এক অনিশ্চয়তার জীবন যাপনে অভ্যস্ত হতে হয়নি। এই তুলনাহীন চ্যালেঞ্জের সময় বিশ্বজুড়ে গ্রাহকদের সংযোগের মধ্যে দিয়ে তাদের আনন্দের উৎসরবরাহ করতে সমর্থ ও ব্যবসা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়েছে। গত বছর নেটফ্লিক্স গ্রাহক ধরতে পেরেছে ৩৭ মিলিয়ন, আয় এসেছে ২৫ বিলিয়ন ডলার। মুনাফা হয়েছে ৪.৬ বিলিয়ন ডলার এবং ব্যবসা বৃদ্ধি পেয়েছে ৭৬ শতাংশ। নেটফ্লিক্সের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ছিল ‘দি ক্রাউন’। প্রথম ২৮ দিনে এ টিভি সিরিজটি আগের ‘ব্রিজেটেন’’এর চেয়ে অনেক বেশি দর্শক ধরতে সমর্থ হয়। এছাড়া ‘ইমেন্সলি পপুলার’, ‘সাম এক্সসাইটিং নিউজ’ বেশ সমাদৃত হয়। চতুর্থ প্রান্তিকে সবচেয়ে জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ছিল ‘দি মিডনাইট স্কাই’। এটির পরিচালক ছিলেন জর্জ ক্লুনি। এছাড়া ‘বিকাম পার্ট অব কালচারাল জাইগাইস্ট’ ও ‘দি কুইন্স গ্যামবিট’ ছিল দর্শক নন্দিত। চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতাও ছিল বেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ।

এছাড়া বিনোদন ব্যবসা চাঙ্গা থাকায় ইউটিউব, টিকটক কনটেইনের ব্যবসাও ছিল সফল। ভিডিও গেমও ভাল ব্যবসা করেছে। এধরনের ব্যবসায় সম্প্রসারণে নেটফ্লিক্স কৌশলগত উদ্ভাবন ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি করতে যাচ্ছে। সম্প্রতি ডিসকভারি ডিসনি প্লাস নামে স্ট্রিমিং সার্ভিস চালু করেছে। এবছরেই ভায়াকম সিবিএস প্যারামাউন্ট প্লাস নামে একই সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছে। বিনিয়োগ করছে ওয়ার্নার মিডিয়ার এইচবিও ম্যাক্স, ও এনবিসি ইউনিভার্সালের পিকক। নেটফ্লিক্স এসব প্রতিদ্বন্দ্বিদের সঙ্গে টিকে থাকতে দিনের পর দিন তাদের সেবার মান আরো উন্নত করার দিকে মনোযোগ দিচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত