প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রযোজকের চাওয়াকে অবহেলা করার সুযোগ নেই, বলেন পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক

ইমরুল শাহেদ: চিত্রজগতে নায়িকা মাহিয়া মাহীর অনেক দুর্নাম আছে। তিনি যোগ্যতার অতিরিক্ত পারিশ্রমিক দাবি করেন। ছবিতে ড্রেসম্যান থাকা সত্তে¡ও তিনি আলাদাভাবে ড্রেসের জন্য অর্থ দাবি করেন। শুটিংয়ে যাওয়ার লট-বহর নিয়ে যান, যাদের ভরণ-পোষণ ইউনিটকেই বহন করতে হয়।

এমনি আরও অনেক কথা। তার কোনোটা সত্য, কোনোটা মিথ্যা। তারপরেও মাহী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিকের চতুর্থ ছবি ‘যাও পাখি বলো তারে’ নামে একটি ছবিতে কাজ করতে যাচ্ছেন। এ বিষয় নিয়ে মানিকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘এসব বিষয়ে আমি কিছু জানি না। মাহীর সঙ্গে আমার একটা ভালো সমঝোতা আছে। আমি তো একটি ছবিতেই চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। সে ছবিতে মাহীর সঙ্গে জুটি করেছি আদর আজাদকে।

আরও একজন তারকা শিল্পী থাকবেন ছবিটিতে। আমার মাথায় আছে সাইমনকে। তিনি যদি করেন, ভালো। না করলে আমাকে অন্য কারও কথা ভাবতে হবে।’ কিন্তু আদর আজাদ এবং নিশাত নাওয়ার সালওয়াকে জুটি করে মোস্তাফিজুর রহমান মানিক নির্মাণ করেছেন স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা। তিনি দ্বিতীয়বারের মতো আদর আজাদকে ছবিতে নিলেও সালওয়াকে নেননি। এ প্রসঙ্গে মানিক বলেন, ‘প্রযোজক ছবিতে তারকাই চেয়েছেন। তিনিই মাহীর কথা বলেছেন।

এছাড়াও প্রযোজক ছবিটিতে আরও একজন তারকা চেয়েছেন।’ মানিক বলেন, ‘নিশাত নাওয়ার সালওয়া আমার নতুন ছবিতে না থাকলেও আরো তিনটি ছবিতে কাজ করছে সে। তার ছবিগুলো মুক্তি পাক। তিনি তারকা হউন। তারপর প্রযোজকরা তার কথাও বলবে।’ মানিক বলেন, ‘চলচ্চিত্রে বর্তমানে কোনো নায়িকা নেই। নায়িকা নিয়ে আলোচনা করলেই মাহী ও পরী মনির নামই চলে আসে সর্বাগ্রে।’ প্রকৃতপক্ষেই এখন কোনো তারকা তৈরি হচ্ছে না। কারণ অনেক নবাগত অভিনীত ছবিই রেডি হয়ে পড়ে আছে। মহামারীর কারণে ছবিগুলো মুক্তি পাচ্ছে না। আগের মতো যদি নিয়মিত ছবি মুক্তি পেত, তাহলে নবাগতদের মধ্য থেকে কেউ না কেউ তারকা হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতো। তাহলে আর নায়িকা সংকট থাকতো না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত