প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আশরাফুল আলম খোকন: আস্থা রাখুন শেখ হাসিনায়

আশরাফুল আলম খোকন: মানসিকতায় একটু সমস্যা আছে আমাদের। যদি সরকারের পক্ষে কথা বলি, যদি সত্য কথাও বলি একশ্রেণির মানুষ বলবে উনি তো সরকারের দালাল। আবার যদি কেউ সরকারের বিপক্ষে বলে এবং সেটা যদি মিথ্যাও হয়, বলবে বাপের বেটা একখান। আমাদের মানসিকতার পরিবর্তনটা দরকার সবার আগে। ভালো কাজের বাহবা না পেলে কেউ ভালো কাজ করতেও উৎসাহিত হয় না। শুধু ব্যতিক্রম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কোনো সমালোচনার তোয়াক্কা করেন না। কে কী বললো, কে কী ভাবলো ওই দিকে ফিরেও তাকান না। দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য যা ভালো ও কল্যাণময়-এর সবকিছু নির্বিঘ্নে করে যাচ্ছেন।

এই বিদ্যুৎ সেক্টরের কথাই ধরেন না! শুধু ‘বিদ্যুতের খাম্বা’ দেখা এই জাতিকে শেখ হাসিনা যখন ‘বিদ্যুৎ বাতি’ দেখানোর উদ্যোগ নিলেন তখন চারদিকে সুশীল সমাজ, বিএনপি-জামায়াত কীভাবে এর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলো। যদি মনে না থাকে তাহলে ওই সময়ের (২০০৯-২০১২) পত্রিকা, টিভি টকশো গুলো দেখে নিয়েন। কিন্তু দেশকে পেছনের দিকে নেবার সেই ষড়যন্ত্রকে শেখ হাসিনা আমলে না নিয়ে বিদ্যুতের জন্য কাজ করেছেন। আজ শতভাগ বিদ্যুতায়নের দ্বারপ্রান্তে দেশ। জাতীয় গ্রিডের আওতায় থাকা সব গ্রাম ও পরিবারে বিদ্যুৎ ইতোমধ্যে পৌঁছে গেছে। জাতীয় গ্রিডের বাইরে থাকা ৩ লাখ ৭ হাজার ২৪৬ পরিবারও আগামী মার্চের মধ্যে বিদ্যুতের আওতায় চলে আসবে। মুজিব বর্ষের উপহার শতভাগ বিদ্যুতায়ন।

কেউ হয়তো বলতে পারেন গ্রামাঞ্চলে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে কিছু সমস্যা হচ্ছে। এই সমস্যাও শিগগিরই মিটে যাবে। আস্থা রাখুন শেখ হাসিনায়। ২০০৯ সালে বিদ্যুৎ উৎপাদন হতো মাত্র ৪ হাজার ৯৪২ মেগাওয়াট। মাত্র ১০ বছরে সেই উৎপাদন এখন পৌঁছেছে ২৩ হাজার ৫৪৮ মেগাওয়াটে। অর্থাৎ, এই ক’বছরে উৎপাদন বেড়েছে ১৮ হাজার ৬০৬ মেগাওয়াট। ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত