প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বরই চাষ করে ভাগ্য বদল, সুখে আছে আরো ৩০টি পরিবার

এস এম সাব্বির : [২] উন্নত জাতের বরই চাষ করে ভাগ্য বদলেছেন গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার কদমপুর গ্রামের কৃষক সামাউল। পাশাপাশি তার বরই বাগানে কাজ করে খেয়ে পরে সুখে আছে আরও ৩০টি পরিবার।

[৩] জেলার অন্য কৃষকেরা এ ধরনের বরই বাগান করে নিজেদের ভাগ্য বদলাবেন প্রত্যাশা কৃষি বিভাগের।

[৪] সামাউল এবছরের প্রথম দিকে উন্নত জাতের বরই চাষ করেন সাড়ে ৩ একর কৃষি জমি লিজ নিয়ে । তিনি ২হাজার ৮০০ চারা লাগিয়েছেন। চাষ শুরুর পর বছর ঘুরতে না ঘুরতেই বাগানের ফল ধরেছে আশাতীত। মাত্র ২লাখ টাকা খরচ করেছেন বাগানের জন্য। সামাউল এখান থেকে ১৫লাখ টাকার ফল বিক্রি করবেন বলে আশা করছেন।

[৫] বলসুন্দরী বা কাশ্মিরি জাতের কুল ছাড়াও এই কৃষক সিডলেস কুলসহ ৪ প্রকার কুল চাষ করেছেন। এসব কুল খেতে মিষ্টি, সুস্বাদু। বাজারে এর চাহিদাও রয়েছে প্রচুর। সামাউলের এ সাফল্যে ইতোমধ্যেই এলাকায় ব্যাপক সাড়া পড়েছে। এলাকার অনেক যুবক কুল চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

[৬] জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক ড. অরবিন্দু কুমার রায় বলেন, বরই চাষ করে সামিউলের ফিরেছে সুদিন। উন্নত জাতের বরই চাষ করার ব্যাপারে কৃষি বিভাগ সব ধরণের সহযোগিতা করবে চাষিদের।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত