প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুসা কলিম মুকুল: কার্টুনিস্ট, কবিয়াল, বয়াতী- সকলে সসম্মানে ফিরে আসুক

মুসা কলিম মুকুল: শ্রেষ্ঠ বাঙালি, শ্রেষ্ঠ ভারতীয়, শ্রেষ্ঠ এশীয়- এসব ভুলভাল কথা। এভাবে তুলনামূলক শ্রেষ্ঠত্বের ঘোষণা অন্যকে ভুলভাবে অশ্রেষ্ঠ করতে উদ্যত হয়। কবি বলছেন, ‘সব সাধকের বড় সাধক আমার দেশের চাষা’। তাহলে গোপাল মন্ডল কিংবা সবিরুদ্দী গাজীর চেয়ে বড় মানুষ খুঁজতে যাওয়া বোকামি। কবি বলছেন, ‘সহজ মানুষ ভজে দেখ না রে মন দিব্যজ্ঞানে, পাবিরে অমূল্য নিধি বর্তমানে।’ তাহলে সহজ মানুষের চেয়ে শ্রেষ্ঠ মানুষ খুঁজতে যাওয়া বোকামি। বোকামি নয় বলছেন? বুদ্ধিমানী তবে? বেশি বুদ্ধিতে সাময়িক লাভ হলেও দীর্ঘ পথের যাত্রায় বেশিবুদ্ধি ভাল ফল বয়ে আনে না।

লালন ফকির খুব কি অশ্রেষ্ঠ মানুষ? চাষা বলেই কি অশ্রেষ্ঠ? তাঁর মূর্তি অপসারণের মধ্য দিয়ে বাঙলার মানুষের সাংস্কৃতিক পরাজয় ঘটে গেছে এক যুগ আগে। সংস্কৃতির আলোহীন জাতির রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ বড়ই অন্ধকার। অন্ধকারে শ্রেষ্ঠের মূর্তি কিংবা ভাবমূর্তি কোনটাই রক্ষা করা যায় না। সংস্কৃতির আলো জ্বলুক যথাশীঘ্রই। পাঠ্যবই শিল্পমান ও বিজ্ঞানমনষ্কতায় সমৃদ্ধ হোক। কার্টুনিস্ট, কবিয়াল, বয়াতী- সকলে সসম্মানে ফিরে আসুক বাংলার বটের মূলে নদীর কূলে কূলে। লালন ফকিরের ভাস্কর্য ফিরে আসুক চৌরাস্তার মোড়ে। সময় যায়। সময় গেলে সাধন হবে না। ফেসবুক থেকে

সর্বাধিক পঠিত