প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মার্কিন নির্বাচন ও কোভিড মন্দায় ডলারের অবমূল্যায়ন ঝুঁকি বাড়তে পারে : গোল্ডম্যান

রাশিদ রিয়াজ : শীর্ষ মার্কিন বহুজাতিক বিনিয়োগ ব্যাংক গোল্ডম্যান স্যাকস বিনিয়োগকারীদের সাবধান করে দিয়ে বলছে কোভিড ভ্যাকসিন ট্রায়ালে ঝুঁকি থাকায় এবং যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কারণে ডলারের মূল্য আরো হ্রাস পেতে পারে। কোভিড মন্দার সঙ্গে সঙ্গে বিশ^ অর্থনীতিতে দোর্দন্ড প্রতাপ কিছুটা হারাতে শুরু করে মার্কিন ডলার। এরপর চীন, রাশিয়া, তুরস্ক, ইরানসহ বিভিন্ন দেশ নিজেদের মুদ্রায় বাণিজ্যিক লেনদেন ও বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ থেকে ডলার প্রত্যাহার শুরু করলে তাও গ্রিনব্যাক হিসেবে আন্তর্জাতিক লেনদেনে পরিচিত এ মুদ্রাটির অবমুল্যায়নে আংশিক হলেও প্রভাব ফেলে। গত ১২ বছরে চীনা মুদ্রা ইউয়ান সর্বোচ্চ মূল্যায়িত হওয়ার সুযোগ পেয়েছে। গোল্ডম্যান স্যাকসের বিশ্লেষণে বিনিয়োগকারীদের সাবধান করে বলা হচ্ছে এ বছর শেষে মার্কিন ডলার প্রতিকূল অবস্থায় থাকবে যদি কোভিড ভ্যাকসিন ট্রায়ালে আরো বিলম্ব হয় এবং ইলেক্টোরাল ভোটে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনে ফের জিতে চান। কারণ ভ্যাকসিন সরবরাহ না পর্যন্ত অর্থনীতির পুনরুদ্ধার কার্যকরভাবে মার্কিন মুল্লুক শুধু নয় তাবৎ বিশে^ই সম্ভব হয়ে উঠছে না। আরটি/স্পুটনিক

গোল্ডম্যান বলছে তাদের নিবিড় পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে বিভিন্ন সূচক ইঙ্গিত দিচ্ছে ডেমোক্রেটিক প্রার্থী জো বাইডেন বিপুল ভোটে জয়লাভ করতে পারেন। বাজার ও জনসমর্থনের বিভিন্ন সূচক বিশ্লেষণেও এমন আভাস পাওয়া যাচ্ছে। হোয়াইট হাউস, সিনেট ও হাউস জিতে নিতে ৬০ শতাংশের বেশি ভোট পেতে পারেন ডেমোক্রেটরা। গ্লোবাল এফ এক্স’এর রেট ও ইএম বিশ্লেষক জাচ প্যান্ডেল বলেন যেভাবে ডেমোক্রেটদের পক্ষে মার্কিন ভোটারদের সমর্থন বাড়ছে তাতে ডলারের মূল্য ২০১৮ সালের চেয়ে নিচে নেমে যেতে পারে। ফাইজার ও মোডার্না’র কোভিড ভ্যাকসিন প্রসঙ্গে তিনি বলেন যদি এধরনের ভ্যাকসিন খুবই কার্যকর হয় তাহলে তা এবছরের মধ্যেই হয়ত ফুড এন্ড ড্রাগ এ্যাডমিনেস্ট্রেশনের অনুমোদন পেয়ে যাবে। কিন্তু তা নিয়ে এখনো সন্দেহ পুরোপুরি দূর হয়নি। প্যান্ডেল বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর ভোট গণনার ক্ষেত্রে দীর্ঘ সময়ের এক ঝুঁকি নিশ্চিতভাবেই রয়েছে বিশেষত সিনেটের জন্যে। জো বাইডেন জিতে গেলে এর প্রভাব ইক্যুইটি বাজারে কি প্রতিক্রিয়া হবে সে ব্যাপারে সবাই অনিশ্চিত। তবে নির্বাচনে ব্যবধান বিস্তৃত হবে বলেই মনে হচ্ছে এবং তা নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে ঝুঁকিকে বরং হ্রাস করবে। মোদ্দা কথা ভ্যাকসিন দ্রুত এসে গেলে তা বাজার পুনরুদ্ধারের পক্ষেই যাবে।

তবে গোল্ডম্যান স্যাকসের পক্ষ থেকে বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ দিয়ে বলা হচ্ছে ডলারের চেয়ে বরং ইউরো কেনা সুবিধাজনক হবে। এমনকি কানাডা ও অস্ট্রেলিয় ডলারও। আর চীন সরকারের বন্ড বা ইউয়ান ক্রয় সবসময় লাভজনক বলে আসছে গোল্ডম্যান। এও বলা হচ্ছে মেক্সিকোর পেসো, দক্ষিণ আফ্রিকার র‌্যান্ড বা ভারতীয় রুপির সঙ্গে ডলারের সমন্বয় থাকবে অস্থির।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত