প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে ১২ মিটার উচ্চতায় সেতু হবে কালুরঘাটে

ইউছুপ রেজা: [২] চট্টগ্রামের কর্ণফুলী নদীতে বহুল প্রতীক্ষিত এই কালুরঘাট সেতু ১২ মিটার উচ্চতায় করার সিদ্ধান্ত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার সেতুর উচ্চতা নিয়ে ঢাকাস্থ সেতু ভবনে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের (রেলওয়ে ও নৌপরিবহন অধিদপ্তর) দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে বিআইডব্লিউটিএর অনড় অবস্থানের পর সন্ধ্যায় উভয়পক্ষ গণ ভবনে প্রধানমন্ত্রীর দ্বারস্থ হন। অবশেষে প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তেই জট খুলল কালুরঘাট সেতুর। আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠকে কোনো সিদ্ধান্ত না হওয়ায় রেলমন্ত্রী নিজে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করে এই বিষয়ে নির্দেশনা চান। প্রধানমন্ত্রী আইনগত দিক ও টেকনিক্যাল সব দিক বিবেচনায় নিয়ে ১২মিটার উচ্চতায় সেতু নির্মাণের অনুমতি দিয়েছেন।

[৩] বিষয়টি নিশ্চিত করে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (সেতু), বর্তমানে বাংলাদেশ রেলওয়ের পরিচালক (প্রকিউরমেন্ট) গোলাম মোস্তফা জানান, উচ্চতা নিয়ে বিআইডব্লিউটিএর অনড় অবস্থানের কারণে রেলমন্ত্রী ও সচিব প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করেছেন। অনেকগুলো বিষয় সেখানে আলাপ হয়েছে।

[৪] তিনি বলেন, এখন নতুন করে ড্রয়িং-ডিজাইন সব করতে হবে। সেতুর ব্যয়ও তিন-চার গুন বেড়ে যাবে। আগে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে সেতুর কাজ শুরুর যে প্রস্তুতি ছিল, সেই প্রস্তুতিতে এখন কাজ শুরু করা যাবে না। বর্তমান নকশা অনুযায়ী বিদ্যমান পুরনো রেলওয়ে সেতুর ৮০ মিটার উত্তরে তৈরি হতে যাচ্ছে নতুন সেতুটি। নতুন সেতুর প্রস্থ হবে ২০ ফুট আর লম্বা ৭৮০ মিটার। ৯টি থাম বা স্প্যান দিয়ে এ সেতু নির্মাণ করা হবে। সেতুটিতে নৌযান চলাচলের জন্য এখন পর্যাপ্ত উচ্চতা ও স্পেস রাখা হবে। ফলে সেতুর নিচে জাহাজ চলাচলে কোনো অসুবিধা হবে না। সেতুটি নির্মিত হলে পর্যটন নগরী কঙবাজারসহ সারাদেশের সাথে নিরবচ্ছিন্ন রেল পরিবহনসহ অন্যান্য সেবা নিশ্চিত করা যাবে। তাছাড়া সেতুর ডাবল লাইন সড়ক দিয়ে নির্বিঘ্নে চলবে যানবাহন।

[৫] সেতু সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা জানান, এ সেতু দিয়ে ১২০ কিলো স্পিডে ট্রেন আর ৬০ কিলো স্পিডে গাড়ি চলতে পারবে।

[৬] সেতু বাস্তাবায়নে প্রধানমন্ত্রীর সাথে একাধিক কথা বলেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চট্টগ্রাম-৮ আসনের এমপি মোছলেম উদ্দিন আহমদ। নির্বাচিত হয়ে সংসদের প্রথম বৈঠকের শুভেচ্ছা বক্তব্যও তিনি কালুরঘাট সেতুর গুরুত্ব নিয়ে এবং দ্রুত সেতু নির্মাণে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছিলেন।

[৭] প্রধানমন্ত্রী ১২মিটার উচ্চতায় সেতু নির্মাণের অনুমতি দেয়ায় বোয়ালখালী তথা দক্ষিণ চট্টগ্রামবাসীর মাঝে আনন্দের বন্যা দেখা দিয়েছে।

[৮] বোয়ালখালী পৌরসভা ছাত্রলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক ও দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি এম.জাহাঙ্গীর রেজা বলেন, সকল প্রতিবন্ধকতা দূর করে সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ১২মিটার উচ্চতায় সেতু নির্মাণের অনুমতি দেয়ায় আন্তরিক অভিনন্দন ও ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত