প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ভারত বায়োটেকের টিকায় নতুন উপাদান, কার্যকারিতা বাড়বে, দ্বিগুণ হবে রোগ প্রতিরোধ

রাশিদুল ইসলাম : [২] ভারত বায়োটেকের চেয়ারম্যান কৃষ্ণা এল্লা জানিয়েছেন, নতুন উপাদান আনতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি ভাইরোভ্যাক্স এলএলসি-র সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। তাদের তৈরি অ্যাডজুভ্যান্ট অ্যালহাইড্রক্সিকুইম-২ যোগ করা হবে কোভিড টিকায়। টাইমস অব ইন্ডিয়া

[৩] সার্স-কভ-২ ভাইরাসের আরএনএ স্ট্রেন নিষ্ক্রীয় করে তৈরি হয়েছে কোভ্যাক্সিন। এটি ইনঅ্যাকটিভেটেড ভ্যাকসিন। কৃষ্ণা এল্লা জানান, এই ভ্যাকসিনের সঙ্গে যদি ভাইরোভ্যাক্সের তৈরি অ্যাডজুভ্যান্ট যোগ করা যায়, তাহলে এর ক্ষমতা কয়েকগুণে বেড়ে যাবে। মানুষের শরীরে দীর্ঘদিন কার্যকরী থাকবে টিকার ডোজ। অ্যাডজুভ্যান্ট হচ্ছে ফার্মাকোলজিক্যাল উপাদান যা ভ্যাকসিনের ইমিউন রেসপন্স বা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। এটি প্রোটিনের কার্যক্ষমতা কমিয়ে দেয়। একই সঙ্গে রক্তের বি-কোষ ও টি-লিম্ফোসাইট কোষের কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয়। বি-কোষ সক্রিয় হলে রক্তে অ্যান্টিবডি তৈরি করে। আর ঘাতক টি-কোষ জাগলে যে কোনও প্যাথোজেনের বিরুদ্ধে শক্তিশালী রোগ প্রতিরোধ শক্তি তৈরি হয়।

[৪] ভ্যাকসিনে সাধারণ অ্যাডজুভ্যান্ট হিসেবে অ্যালুমিনিয়াম হাইড্রক্সাইড ব্যবহার করা হয়। এই অ্যাডজুভ্যান্ট টিএইচ২ কোষের সক্রিয়তা বাড়িয়ে দেয়। এই কোষ অ্যাকটিভ হলে যে কোনও ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস বা প্যাথোজেনের বিরুদ্ধে মোকাবিলা করতে পারে। কৃষ্ণা এল্লা বলছেন, এই ধরনের অ্যাডজুভ্যান্ট যেমন ভাল, তেমনি এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও আছে। ভ্যাকসিনের কারণে শ্বাসজনিত রোগের সম্ভাবনা বাড়িয়ে দিতে পার। যদি ইমিডাজোকুইনোলিন গোত্রের অ্যাডজুভ্যান্ট ব্যবহার করা যায় তাহলে তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার কোনও সম্ভাবনাই থাকে না।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত