প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] এক উপন্যাসের লেখক ২৮ জন, চৈতন্য থেকে প্রকাশিত বইটি পাওয়া যাবে আগামী সপ্তাহ থেকে বাতিঘরে

দেবদুলাল মুন্না:[৩] এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন চৈতন্য প্রকাশনীর কর্ণধার রাজীব চৌধুরী। গত মঙ্গলবার প্রকাশিত বারোয়ারি এ উপন্যাসের নাম ‘শঙ্খমিত্রা’। ২৮ জন লেখকের ‘শঙ্খমিত্রা’ ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ হয়েছিল চতুর্মাত্রিক ব্লগে। ২০১০ সালে উপন্যাসটির প্রথম পর্ব প্রকাশ হয়। এর এক দশক পর ১৫ সেপ্টেম্বর দুই মলাটে বন্দি হলো ‘শঙ্খমিত্রা’।

[৪] উপন্যাসটির একেকটি পর্ব একেকজন লিখেছেন। তাদের অনেকেই ছদ্মনামে লিখতেন। যারা লিখেছেন— কৃষ্ণ জলেশ্বর, ত্রেয়া, সাদা কালো এবং ধূসর, সন্যাসী, নীল বালক, ভেবে ভেবে বলি, বাবুল হোসেইন, চিটি, ওয়াহিদ সুজন, লুব্ধক, অভ্র, রংধনু, প্রণব আচার্য্য, অন্তিম, নির্ঝর নৈঃশব্দ্য, কবি, শেখ আমিনুল ইসলাম, দূরদ্বীপবাসিনী, ইলিয়াস কমল, নীল কথন, জ ই মানিক, ইসতিয়াক অয়ন, নম্রতা, জোবায়েদা হুসাইন, শূন্য আরণ্যক, সজীব, ফারুক আব্দুল্লাহ ও বৃতি হক।

[৫] বর্তমান ভূমিকা লিখেছেন ও সম্পাদনা করেছেন হাসান মাহবুব। প্রচ্ছদ ও উপন্যাসের নামকরণ কৃষ্ণ জলেশ্বরের। প্রথম অধ্যায়ের লেখকও তিনি। প্রকাশ করেছে চৈতন্য। অনলাইন বুকশপ রকমারি ডটকমে উপন্যাসটি পাওয়া যাচ্ছে।

[৬] উপন্যাসের শুরু এভাবে, “চালার ফাঁক গলে ম্লান অথচ দৃশ্যমান এক টুকরা জোছনা শহর আলীর বুকে এসে পড়লে করিমন বাম হাতে শহর আলীর বুক থেকে ম্লান জোছনার টুকরাটি একবার হাতে নেয় তারপর আবার শহর আলীর বুকে ফেলে দেয়।”

সর্বাধিক পঠিত