প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনার পরও পরিস্থিতির উন্নতি হয়নি, চীন-ভারত যুদ্ধপ্রস্তুতি নিচ্ছে, অভিমত আন্তর্জাতিক পর্যবেক্ষকদের

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [২] মস্কোকে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হয়ে ভারত ও চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা সম্পূর্ণরুপে সেনা প্রত্যাহারে ৫টি দফায় একমত হয়েছেন। এরমধ্যে অন্যতম ছিলো পিপলস লিবারেশন আর্মি-পিএলএ ফিঙ্গার ফোর এলাকা থেকে পিছিয়ে যাবে। তবে ভারতীয় সেনা সদরের একটি সূত্র বলছে, চীন তো পিছায়নি, বরং বেশ কিছু ইনফেন্ট্রি আর্মড ভেহিক্যাল নিয়ে এসে অবস্থান আরও সুসংহত করেছে। ইন্ডয়া টুডে।

[৩] আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গ্রুপে কর্মরত সাবেক জেনারেলরা বলছেন স্পষ্টতই আলোচনার আড়ালে যুদ্ধপ্রস্তুতি নিচ্ছে দুই দেশ। লাদাখে দুই দেশের সামরিক উপস্থিতি বেড়েছে। ভারত পুরো লাদাখজুড়ে মোতায়েন করেছে ৫০ হাজার সেনা। চীনের সেনা আরও বেশি। রয়টার্স

[৪] সূত্র জানায়, গত সোমবার তোলা স্যাটেলাইট চিত্রে দেখা যাচ্ছে, প্যাংগংয়ের উত্তর প্রান্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর নতুন করে বিপুল পরিমাণ কাঠামো তৈরি করেছে চীন।

[৫] সেনা সূত্র জানায়, প্রায় প্রতিদিনই দুই পক্ষের মধ্যে ছোটখাটো সংঘাত হচ্ছে। সীমান্তের দুই পার থেকেই শূন্যে গুলি ছোড়া হচ্ছে।

[৬] ভারতীয় সেনার এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানান, চীন এলএসির খুব কাছে অন্তত ১৫০ যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে। গ্লোবাল নিউজ।

[৭] চীনের সরকারি মুখপত্র গ্লোবাল টাইমস বুধবার দাবি করা হয়, ভারতের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই সীমান্তে সামরিক শক্তি বাড়ানো হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সীমান্তে বোমারু, এয়ার ডিফেন্স মিসাইল, আর্টিলারি, সাঁজোয়া যান, পদাতিক বাহিনী ও স্পেশাল ফোর্স মোতায়েন করা হচ্ছে। সম্পাদনা: ইকবাল খান

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত