প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] উত্তেজনার মধ্যেই তুরস্ক সীমান্তে সামরিক শক্তি বাড়িয়েছে গ্রিস

সিরাজুল ইসলাম: [২] তুরস্ক থেকে ইউরোপমুখী অভিবাসীদের ঢল ঠেকাতেই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে এথেন্স। তারা বলছে, সাগরের সীমান্ত নিয়ে উত্তেজনার কারণে আঙ্কারা ইউরোপমুখী অভিবাসীদের ঢল হয়তো থামাবে না। তাহলে পরিস্থিতি সামাল দেয়া কঠিন হয়ে পড়বে। আলজাজিরা, ডয়চে ভেলে

[৩] গ্রিসের অভিবাসন প্রতিমন্ত্রী জর্গোস কাউমাউসাকোস বলেন, তুরস্কের ওপর ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নিষেধাজ্ঞা দিতে পারে। যদিও এ নিয়ে সংশয় রয়েছে। নিষেধাজ্ঞা এড়াতে তুরস্ক চাপ প্রয়োগের কৌশল হিসেবে অভিবাসীদের ব্যবহার করতে পারে।

[৪] ২৪ ও ২৫ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠেয় ইইউর কাউন্সিলের বৈঠকের শীর্ষ এজেন্ডায় রয়েছে দেশ দুইটির বিবাদের বিষয়। ফ্রান্স ও গ্রিসের মতো দেশগুলো তুরস্কের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার আরোপের জন্য সংস্থাটির ওপর চাপ প্রয়োগ করছে।

[৫] সিরিয়ার গৃহযুদ্ধের কারণে লাখ লাখ শরণার্থী তুরস্কে আশ্রয় নিয়েছে। অনেকেই সেখান থেকে গ্রিস সীমান্ত দিয়ে ইউরোপে প্রবেশের চেষ্টা করে থাকে। শরণার্থীদের ইউরোপে প্রবেশ ঠেকানোর অঙ্গীকার করেছিল তুরস্ক। ইইউ গ্রিসের পক্ষ নেয়ায় অবস্থান পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছে তুরস্ক।

[৬] তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তায়েফ এরদোগান হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, গ্রিস হয় রাজনীতি ও কূটনীতির ভাষা বুঝবে, না হয় তাদের বেদনাদায়ক অভিজ্ঞতার মুখে পড়তে হবে। তুরস্কের জনগণ যেকোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

[৭] পূর্ব ভূমধ্যসাগরে অশোধিত তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস তোলা নিয়ে গ্রিস ও তুরস্কের মধ্যে বিরোধ বাড়ছে। গত মাসে তেল ও গ্যাস খোঁজার জন্য একটি জলযান গ্রিস ও সাইপ্রাসের মধ্যবর্তী এলাকায় পাঠিয়েছে তুরস্ক।

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত