প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]দুর্ভেদ্য নিরাপত্তায় ঘেরা বিশ্বের চারটি গোপনীয় স্থাপনা, নানা রহস্য

সালেহ্ বিপ্লব: [২] এরিয়া ৫১, আমেরিকার নেভাডায় অবস্থিত একটি মিলিটারি বেস, এয়ারফিল্ড। পৃথিবীর সবচেয়ে সিকিউরড এলাকাগুলোর একটি। এর নিজস্ব এলাকার বাইরেও একটা বিশাল এলাকা জুড়ে সাধারণ মানুষের প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। বহু মানুষের ধারণা, ওখানে ভিনগ্রহের প্রাণীদের নিয়ে গবেষণা হয়। এলিয়েনরা আসা-যাওয়া করে।

[৩] পরের নামটি ব্রিটেনের আরএএফ মেনউইথ হিল। সারা বিশ্বের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কাছে এটি এক বিস্ময়। আমেরিকা আর ব্রিটেনকে ইন্টেলিজেন্স সাপোর্ট দেয়ার জন্য এটা তৈরি। পৃথিবীর সবচেয়ে বড় ইলেকট্রনিক মনিটরিং স্টেশন রয়েছে এখানেই।

[৪] ভ্যাটিকানে রয়েছে একটি আর্কাইভ, যার নাম স্টোরহাউস অভ সিক্রেট। পোপের বিশেষ অনুমতি সাপেক্ষে খুব কম সংখ্যক স্কলারই এই জায়গায় ঢুকতে পারেন। এখানে প্রায় ৮৪ হাজার বই আছে, জায়গাটি প্রায় ৮৪ কিমি দীর্ঘ। জনশ্রুতি আছে, এই গ্রন্থগুলো বিভিন্ন ধর্মের দুস্প্রাপ্য প্রাচীন দলিল।

[৫] রাশিয়ার মস্কো মেট্রো ২ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় আন্ডারগ্রউন্ড শহর। কিন্তু রাশিয়ার সরকারের তরফ থেকে কখনোই এর অস্তিত্ব স্বীকার করা হয়নি। স্ট্যালিনের আমলে তৈরি এই শহর সম্পর্কে সাধারণ মানুষ ভালো করে কিছু জানেও না। উইকিপিডিয়া

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত