প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] করোনার মধ্যে খেলতে হলে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানকে অনুসরণ করা উচিৎ বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] পাঁচ মাসের করোনা বিরতির পর জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছে মাঠে। এর ভেতর বায়ো সুরক্ষিত পরিবেশ ভঙ্গ করায় ইংল্যান্ডের জফরা আর্চার এবং পাকিস্তানের মোহাম্মদ হাফিজকে যেতে হয়েছিল আইসোলেশনে। ৫ দিনের আইসলেশন কাটিয়ে ফিরতে হয়েছে দলে।

[৩] বাংলাদেশের আসন্ন শ্রীলংকা সফরটিও হবে জৈব সুরক্ষিত পরিবেশে। আর সফরকালে বিষয়টি বেশ চ্যালেঞ্জের হবে বলে মনে করেন জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে দলপতি তামিম ইকবাল। স¤প্রতি গণমাধ্যমকে এমনটাই জানান এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

[৪] দেশ ছাড়ার এক সপ্তাহ পূর্বেই আইসলেশনে নেয়া হবে জাতীয় দলের এবং এইচপি দলের ক্রিকেটারদের। সেখানে দুই দফায় করোনা পরীক্ষার পর লঙ্কার উদ্দেশ্যে প্লেন ধরবে তামিম-মুশফিকরা।

[৫] শ্রীলংকা পৌঁছে কোয়ারেন্টিন শেষ করে স্টেডিয়াম এবং হোটেলের বাহিরে কোনোভাবেই জেতে পারবেন না ম্যাচের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কেউই। মেনে চলতে হবে কঠোর নিয়ম কানুন। আর এসব মেনে চলাই কষ্টকর হবে হলে মনে করেন দেশসেরা এই ওপেনার।

[৬] তামিম বলেন, তাদের পক্ষে দেশে থাকতে খুব চ্যালেঞ্জ হবে। এটি এক সপ্তাহব্যাপী হবে। ১৮ সেপ্টেম্বর প্রথম পর্বের কোভিড-১৯ পরীক্ষার এক-দু দিনের মধ্যে তাদের বায়ো-সুরক্ষিত পরিবেশে প্রবেশ করতে হবে।

[৭] এটি লম্বা সফর হবে। আমরা এমন দীর্ঘ সফরে আরও গিয়েছিলাম। পরিবার ছাড়া আমাদের সময় কাটাতে আমাদের অনেক অভিজ্ঞতা রয়েছে। তবে এবাররে বিষয়টি হল দেশে অবস্থান করেও পরিবারের সাথে মেলামেশার কোনও উপায় নেই।

[৮] যদিও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিষয়টিতে মোটেও বিচলিত নয়। বরঞ্চ এটিকে অতি সাধারণ হিসেবেই নিচ্ছে বোর্ড। বিসিবির প্রধান চিকিৎসক ডাঃ দেবাশিস চৌধুরী বলেন, ‘এটি মাত্র এক সপ্তাহব্যাপী প্রোগ্রাম হবে। খেলোয়াড়দের পরিবারের সদস্যরা তাদের সাথে দেখা করতে বিমানবন্দরে আসতে পারেন। তবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখেই তা ঘটবে।- ক্রিকফ্রেঞ্জি

 

সর্বাধিক পঠিত