প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] শেখ কামাল বেঁচে থাকলে দেশকে অনেক কিছু দিতে পারতেন, বললেন প্রধানমন্ত্রী

বাশার নূরু ও মহসীন কবির : [২] বুধবার (৫ আগস্ট) ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে শেখ কামালের ৭১তম জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে একথা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

[৩] প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যার বিচার পেতে আমাদের অনেক অপেক্ষা করতে হয়েছে। ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের মধ্যেদিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নষ্ট করার চেষ্টা করা হয়েছে।

[৪] তিনি বলেন, আমি আর কামাল ছোটবেলায় যখন একসঙ্গে খেলাধুলা করতাম তখন আমাদের মধ্যে অনেক ঝগড়াঝাটি মারামারি হতো। তাৎক্ষণিক আবার আমরা ভাই-বোন মিশে যেতাম। কামাল ছোট ছিল সে বাবাকে অনেক সময় কাছে পেত না। তখন তো বাবা সব সময় জেল থাকতো। তাই অনেক সময় যখন আমরা খেলাধুলা করতাম এর ফাঁকে আমি যখন আব্বাকে আব্বা বলে ডাকতাম তখন কামাল আমাকে বলতো হাসু আপা ও আপা আমি তোমার আব্বাকে একটু আব্বা বলে ডাকি।

[৫] শেখ হাসিনা বলেন, মাকে প্রচণ্ডভাবে সহযোগিতা করতো কামাল। ছোটবেলা থেকেই সে অত্যন্ত দায়িত্বশীল ছিল। প্রত্যেকটা কাজে দায়িত্বের সঙ্গে পালন করতো। দেশ স্বাধীন হওয়ার পর আমার বাবা যে সেনাবাহিনী গড়ে তুলেছিলেন সেই সেনাবাহিনীর কিছু সদস্য আমাদের পুরো পরিবারের সদস্যদের হত্যা করে। জানি না কী অপরাধ ছিল? বাবার তৈরি সেনাবাহিনীর সদস্যদের হাতেই তার মৃত্যু হলো। একই সঙ্গে শেখ কামাল শেখ জামাল তারাও সেনাবাহিনীর সদস্য ছিলেন তাদেরকেও গুলি করে হত্যা করা হয়।

[৬] ১৯৪৯ সালের ৫ আগস্ট গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন শেখ কামাল। জন্মদিনে ক্রীড়াঙ্গনে নানান আয়োজন হতে যাচ্ছে। এবারই প্রথমবারের মতো সরকারিভাবে নানা আয়োজনে তার জন্মদিন উদযাপন করতে যাচ্ছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। এছাড়া তারই সৃষ্টি আবাহনী লিমিটেডের ক্লাব প্রাঙ্গণেও হবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান।

[৭] এর আগে আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠন সকাল সাড়ে ৮টায় ধানমন্ডিস্থ আবাহনী ক্লাব প্রাঙ্গণে শহীদ শেখ কামালের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও সোয়া ৯টায় বনানী কবরস্থানে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত