প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পেশা বদলে বাঁচার সংগ্রামে শিক্ষকরা, কি হতে পারে ভবিষ্যৎ

ইসমাঈল আযহার : [২] বাংলাদেশ কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের মহাসচিব মিজানুর রহমান বলেন, দেশের প্রায় ৪০ হাজার কিন্ডারগার্টেন ৩০ ভাগ শিক্ষা দিয়ে থাকে। করোনার কারণে আজ এসব কিন্ডারগার্টেনগুলোর অনেকেই বিপর্যস্ত এবং মানসিকভাবে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত। এমত অবস্থায় ভাড়ার চিন্তায় একজন শিক্ষক স্ট্রক করে মারা গেছেন এবং অন্য একজন নিজ স্কুলে আত্মহত্যা করেছেন। এই অবস্থা দীর্ঘায়িত হলে প্রতিটা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানই এদিকে ধাবিত হবে।

[৩] শিক্ষকদের বাঁচানোর কোনো উদ্যোগ নিয়েছেন কিনা, এমন এক প্রশ্নের উত্তরে মিজানুর রহামান বলেন, আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবর দুই দফা স্মারকলিপি প্রেরণ করেছি, এবং প্রথমিক গণশিক্ষামন্ত্রী জাকির হোসেন স্যারের সঙ্গে দু’বার দেখা করে দুরাবস্থার কথা তুলে ধরেছি। মাননীয় শিক্ষাপ্রতিমন্ত্রী আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন, তিনি আলাপ আলোচনা করে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন এবং আমাদের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করবেন। ২০ জুন শেষ দেখা করার পর এখন পর্যন্ত কোনো সারা-শব্দ পাননি বলেও জানান তিনি।

[৪] তিনি বলেন, আমাদের ত্রাণের দরকার নেই, সরকার যদি শুধু একটু সহজ শর্তে ব্যাংক লোনের ব্যবস্থা করে দেয় তাহলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বাড়ি-ভাড়া এবং বেতন দিয়ে টিকে থাকতে পারে। তিনি বলেন, এই প্রতিষ্ঠানগুলো টিকে না থাকলে সরকারকে ২৫ থেকে ৩০ হাজার প্রথমিক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নির্মাণ করতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে প্রতি মাসে শিক্ষকদের বেতন দিয়ে ১৭শ কোটি টাকা রাজস্ব ব্যয় করতে হবে। আমরা সরকারের এই খরচ বাঁচিয়ে দিয়েছি, বিনিময়ে আমরা শুধু বিনামূল্যে বইটা পাই।

[৫] সমাজ বিশ্লেষক অধ্যাপক তৈহিদুল ইসলাম এ প্রসঙ্গ এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, মানুষেরা শহর থেকে গ্রামে চলে যাচ্ছে, পেশা বদলাচ্ছে, বা আরো বিভিন্ন যেসব গল্প, এগুলো কিন্তু সহজেই থেমে যাবে না। এর পরিসর আরো বাড়তেই থাকবে। আমরা বলতে পারি দীর্ঘ সময় ধরে এটি চলবে। ৭১ টিভি

 

সর্বাধিক পঠিত