প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ‘বিশাল সম্মান’ গ্রহণ করতে মুখিয়ে ইংলিশ তারকা বেন স্টোকস

স্পোর্টস ডেস্ক: [২] বয়সভিত্তিক দলে খেলার সময় শেষবার অধিনায়কত্ব করেছিলেন। সেটাও এক যুগের বেশি সময় আগের কথা। খেলোয়াড় হিসেবে তার অগ্রাধিকারের তালিকাতেও নেই অধিনায়কত্ব। তবে ইংল্যান্ড টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার ‘বিশাল সম্মান’ গ্রহণ করার সুযোগ পেলে তা লুফে নেবেন বেন স্টোকস।

[৩] আগামী মাসে দ্বিতীয় সন্তানের জনক হতে যাচ্ছেন নিয়মিত ইংলিশ দলনেতা জো রুট। তাই ঘরের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে খেলছেন না তিনি। পরের দুটি ম্যাচেও তার না খেলার গুঞ্জন উঠেছে। রুটের অনুপস্থিতিতে ইংল্যান্ডের নেতৃত্ব পাওয়ার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন টেস্টের সহ-অধিনায়ক স্টোকস।

[৪] অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হওয়াতেই ‘গর্বিত’ বোধ করছেন এই ২৯ বছর বয়সী অলরাউন্ডার। ২০১৯ সালে আইসিসির বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার পাওয়া তারকা সোমবার এক কনফারেন্স কলে বলেন, ‘যদি কেবল একবারও ঘটে, তবুও আপনি বলতে পারবেন, হ্যাঁ, আমি ইংল্যান্ডকে নেতৃত্ব দিয়েছি। – ক্রিকইনফো

[৫] ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে ব্রিস্টলে একটি নাইট ক্লাবের বাইরে মারামারিতে জড়িয়ে পড়েছিলেন স্টোকস। সেই ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলাও করা হয়েছিল। পরবর্তীতে অবশ্য নির্দোষ প্রমাণিত হন তিনি। ২০১৮ সালের অগাস্টে আদালতের রায়ে বলা হয়েছিল, তিনি যা করেছিলেন, তা কেবল আত্মরক্ষার জন্যই।

[৬] ওই ঘটনা ক্যারিয়ারের তো বটেই, স্টোকসের জীবনের মোড়ও ঘুরিয়ে দিয়েছে। বিতর্ক পেছনে ফেলে ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দেখানোর সুবাদে ২০১৯ সালের জুলাইতে টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক হন তিনি। এবার প্রথমবারের মতো থ্রি লায়ন্সদের সাদা পোশাকের নেতার দায়িত্ব নেওয়ার জোরালো সম্ভাবনাও জাগিয়েছেন তিনি।

[৭] নিজের ঘুরে দাঁড়ানোর প্রক্রিয়া নিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম স্কাইকে তিনি জানান, ‘কঠোর পরিশ্রম এবং সংকল্পের মাধ্যমে এই অবস্থানে আসতে পেরেছি বলে আমি বেশ গর্বিত। আমি ভালো করতে চেয়েছিলাম এবং এটা কোনো আকস্মিক সাফল্য নয়।

[৮] ২০০৬ সালে ডারহাম একাডেমিতে থাকাকালীন শেষবার অধিনায়কত্ব করেছিলেন স্টোকস। এরপর লম্বা সময় পেরিয়ে গেলেও কেন আর নেতৃত্ব দেননি, সে বিষয়ের ব্যাখ্যায় তিনি বলেন, ‘আমি কখনোই অধিনায়ক হওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করিনি।… সত্যি বলতে, আমি তাদের মধ্যে একজন নই যাকে লোকেরা ইংল্যান্ডের পরবর্তী অধিনায়ক হিসেবে বিবেচনা করে থাকে।

[৯] উল্লেখ্য, ইংল্যান্ড ও সফরকারী ক্যারিবিয়ানদের মধ্যকার প্রথম টেস্ট শুরু হবে আগামী ৮ জুলাই। ভেন্যু সাউথ্যাম্পটন। পরের ম্যাচ দুটি হবে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হবে ১৬ জুলাই। তৃতীয় ও শেষ টেস্ট মাঠে গড়াবে ২৪ জুলাই থেকে। প্রতিটি ম্যাচই হবে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে ও জৈব-সুরক্ষিত পরিবেশে। – ডেইলি স্টার

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত