প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

করোনোয় আক্রান্ত ট্রুডোর স্ত্রী যে বার্তা দিলেন

প্রথম আলো : কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগয়ের-ট্রুডো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তাঁর শরীরে করোনাভাইরাসের কারণে দেখা দেওয়া কোভিড-১৯ রোগের উপস্থিতি শনাক্ত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ট্রুডোর কার্যালয় থেকে এ কথা ঘোষণা করা হয়। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী সোফিকে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত পৃথক রাখা হবে। খবর এএফপির।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগয়ের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় বলেছেন, ‘আমি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছি। তবে শিগগিরই সেরে উঠব। বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকার অভিজ্ঞতা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত অন্য কানাডার অন্য সব নাগরিকদের মতোই।’

খবরে জানানো হয়, সোফির শরীরে করোনাভাইরাস-সৃষ্ট রোগ ধরা পড়লেও তা এখনো প্রকট হয়ে ওঠেনি। মৃদু মাত্রায় রয়েছে। তবে জাস্টিন ট্রুডোর শরীরে এখনো ওই ভাইরাস শনাক্ত হয়নি। চিকিৎসকেরা ট্রুডোকে ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন।

বুধবার যুক্তরাজ্যে এক অনুষ্ঠানের পর ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগয়ের খানিকটা অসুস্থ বোধ করেন। এরপর থেকে ট্রুডো ও তাঁর স্ত্রী স্বেচ্ছা আইসোলেশনে আছেন। তবে ট্রুডোর শরীরে করোনার লক্ষণ দেখা যায়নি। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী তাই ট্রুডোর করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়নি।

কানাডার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় বলছে, জাস্টিন ট্রুডো তাঁর কার্যালয়ে নিয়মিত দায়িত্ব পালন করবেন। আগামী শনিবার তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেবেন।

ট্রুডোর কার্যালয় থেকে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার থেকে আইসোলেশনে থাকলেও ট্রুডো ফোনে বেশ কয়েকটি সভায় অংশ নিয়েছেন। তিনি কোভিড-১৯ নিয়ে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকেও অংশ নিয়েছেন। ইতালি, যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের নেতাদের সঙ্গেও কথা বলেছেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার ট্রুডো আদিবাসী নেতাদের সঙ্গে কথা বলবেন। তিনি প্রাদেশিক ও আঞ্চলিক প্রধানদের সঙ্গেও করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও প্রতিরোধব্যবস্থার কার্যক্রম ও অর্থনীতিতে এর প্রভাব নিয়ে কথা বলবেন।

গত বছরের ডিসেম্বর মাসে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঘটে। এএফপির সর্বশেষ জরিপ অনুসারে, ১১৬টি দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে। ১ লাখ ৩০ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। কমপক্ষে ৪ হাজার ৯০০ জন মারা গেছে।

কানাডার জনস্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ বলছে, চীন, ইরান, ইতালি, মিসর থেকে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা গেছে। তবে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফিরেছেন, এমন সাতজনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

পার্লামেন্টে কানাডার স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্যাটি হাজদু চার্চ, কমিউনিটি সেন্টার, কনসার্ট ও খেলার অনুষ্ঠানের মতো জনসমাগমস্থলে যেতে নিরুৎসাহ করেছেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত