প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

টুইটারে একটা মেয়ে ফান্ড কালেক্ট করছে, সে তার ন্যুড ছবি পাঠাবে বিনিময়ে অস্ট্রেলিয়ায় বন্যপ্রাণীদের দাবানল থেকে বাঁচানোর তহবিলে ১০ ডলারের ডোনেশন রিসিট পাঠাতে হবে, সে একদিনে ফান্ড কালেক্ট করেছে কতো টাকার জানেন? ৬০ হাজার ইউএস ডলার!

 

জান্নাতুন নাঈম প্রীতি : টুইটারে একটা মেয়ে ফান্ড কালেক্ট করছে, সে তার ন্যুড ছবি পাঠাবে বিনিময়ে অস্ট্রেলিয়ায় বন্যপ্রাণীদের দাবানল থেকে বাঁচানোর তহবিলে ১০ডলারের ডোনেশন রিসিট পাঠাতে হবে। এই ঘটনায় সবচেয়ে বেশি রিয়েক্ট করেছে মেয়েরা, কিন্তু ওই মেয়েটা পাত্তা দেয়নি। গালাগালিও গায়ে মাখেনি। সে একদিনে ফান্ড কালেক্ট করেছে কতো টাকার জানেন? ৬০ হাজার ইউএস ডলার। দূর্বা জাহান যখন এই তথ্য জানালো তখন আমার মনে পড়লো কুসুম (ছদ্মনাম)-এর কথা। কুসুম সেক্স ওয়ার্কার, বাঙালি পুরুষদের ভাষায় বেশ্যা। কুসুম বার্ন ইউনিটের একটা রান্নাঘরের গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে পুড়ে যাওয়া একটা মেয়ের চিকিৎসা করিয়েছিলো নিজের টাকায়। মেয়েটা সেরে ওঠার পরে যখন সেই মেয়ের ফ্যামিলি জানলো কুসুম একজন সেক্স ওয়ার্কার, সে লোকেদের সাথে টাকার বিনিময়ে শোয়, তখন তারা ওকে তাড়িয়ে দিলো। একবার মনেও করে নাই কুসুম ছাড়া ওরা মেয়েকেই বাঁচাতে পারতো না।

লিও তলস্তয় তার ‘রেজারেকশন’ নামের যে ভুবন বিখ্যাত বইটা লিখেছিলেন, সেটায় কাতিউশা নামের একজন গৃহকর্মীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সেক্স করে একজন ডিউক। সেই মেয়েটা ধরা পড়ে যাবার পর তাকেই বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়, অনেকদিন পর সেই ডিউক আবিস্কার করে কাতিউশা একজন বেশ্যা। কারণ বাড়িতে যাওয়ার কোনো জায়গা ছিলো না। সে কাজ নিয়েছিলো ব্রোথেলে। সেই ডিউকটি মূলত তলস্তয়ই ছিলেন। চেষ্টা করেছিলেন তার পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে। জ্বি হ্যাঁ, আপনার নিয়ত ঠিক করে দেয় আপনি আসলে কে। আপনি মেয়েটাকে গালি দেবেন, ন্যুড ছবি নিয়ে বিশ্রী মন্তব্য করবেন হয়তো, কিন্তু তার আগে জিজ্ঞেস করবেন নিজেকে- ওই দাবানল থামানোয় আপনার ভূমিকা কী? অন্যকে বিচারের আগে নিজেকে প্রশ্ন করুন। নিজেকে বলুন- মিথ্যা শুনিনি ভাই, এই হৃদয়ের চেয়ে বড় কোনো মন্দির কা’বা নাই। জনাব, আপনি নিজেকে সভ্য বলছেন, কিন্তু সভ্যতা বাঁচাতে কতোটা কি করছেন? ফেসবুক থেকে

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত