প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যুক্তরাষ্ট্রকে বন্ধুত্ব আরও গভীর করার প্রস্তাব তুরস্কের

ডেস্ক রিপোর্ট  : রাশিয়া থেকে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ কেনার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আপত্তি ও হুমকির পর এবার দেশটির প্রতি পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ ও বন্ধুত্ব আরও গভীর করার প্রস্তাব দিয়েছে তুরস্ক।

আগামী জুলাইয়ের মধ্যে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা কেনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে তুরস্ককে সময়সীমা বেঁধে দিয়ে চিঠি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। পাশাপাশি এফ-৩৫ বিমান চালনায় তুরস্কের পাইলটদের প্রশিক্ষণ বন্ধ করে দিয়েছে মার্কিন সরকার।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে এক চিঠির মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রকে আরও বন্ধুত্ব গভীর করার এ প্রস্তাব দেন তুরস্কের প্রতিরক্ষামন্ত্রী হুলুসি আকার।

মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী প্যাট্রিক শানাহানকে লেখা ওই চিঠিতে তুর্কি প্রতিরক্ষামন্ত্রী বলেন, একটি সুসম্পর্কের জন্য পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের পাশাপাশি আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কাজ।

এর আগে গত মাসে মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর থেকে তার্কিশ প্রতিরক্ষা দপ্তরে পাঠানো এক চিঠিতে বলা হয় নিরাপত্তাজনিত কারণে তার্কিশ পাইলটদের এফ-৩৫ চালনার প্রশিক্ষণ প্রোগ্রাম স্থগিত করা হল।

মার্কিন বিবৃতি অনুযায়ী রাশিয়া থেকে এস-৪০০ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্থ করছে। এছাড়াও ওই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় নিয়ে তুরস্ককে হুমকি দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্র।

তাছাড়া রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা কেনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে তুরস্ককে সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

আগামী জুলাইয়ের মধ্যে তুরস্ককে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে- তারা রাশিয়ার বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তি এস-৪০০ নিবে নাকি মার্কিন যুদ্ধ বিমান এফ-৩৫ কিনবে।

তবে তুরস্কের প্রতিরক্ষা দপ্তর বলছে তারা একইসঙ্গে এস-৪০০ ও এফ-৩৫ দু’টো প্রোগ্রামই নিজেদের মতো করে চালু রাখবে।

প্রসঙ্গত, এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে কয়েকমাস ধরেই টানাপড়েন চলছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বাধা সত্ত্বেও ২০১৭ সালে তুরস্ক রাশিয়া থেকে এস-৪০০ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ক্রয়ের চুক্তি করে।

এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। সম্প্রতি কয়েক মাসে আঙ্কারা রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্রের বিভিন্ন যন্ত্রপাতি গ্রহণ করতে থাকে। এ বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আগামী জুলাই মাসে রাশিয়ার থেকে গ্রহণ করবে তুরস্ক।

তবে রাশিয়ার এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে মার্কিন নিষেধাজ্ঞার হুমকিতে রয়েছে তুরস্ক।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা কেনার জন্য তুরস্ককে পরামর্শ দিয়েছে। তারা বলছে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ন্যাটো পদ্ধতির পরিপন্থী এবং পঞ্চম প্রজন্মের এফ-৩৫ অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমানের জন্য হুমকি।

তুরস্ক যদিও ইতিমধ্যেই ১০০টি এফ-৩৫ যুদ্ধ বিমান কিনতে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে এবং এফ-৩৫ কর্মসূচীতে বিপুল অর্থ বিনিয়োগ করেছে। প্রথম চারটি এফ-৩৫ তুরস্ককে হস্তান্তরের কথা থাকলেও সেগুলো এখনো তুরস্কের হাতে দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র।

তবে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, রাশিয়ার সঙ্গে এস-৪০০ চুক্তি এগিয়ে নিতে তাদের অবস্থান অত্যন্ত দৃঢ়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত