প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২০১৮ সালে শিক্ষকের নির্যাতনের শিকার ১২৯ শিশু

নিউজ ডেস্ক : ২০১৮ সালে ২৭১টি শিশু ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, হত্যা ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়ে মারা গেছে। আর শুধু শিক্ষকদের দ্বারা নির্যাতিত হয়েছে ১২৯টি শিশু। আর ধর্ষণ, হত্যা ও অপহরণের চেষ্টা এবং নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১০০৬ শিশু। এর বাইরে সড়ক দুর্ঘটনা, আত্মহত্যা, অপহরণ এবং নিখোঁজ হয়েও ব্যাপক সংখ্যক শিশু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন।

রোববার (২৮ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘বাংলাদেশ শিশু পরিস্থিতি ২০১৮’ সংবাদ বিশ্লেষণ অনুষ্ঠানে এসব তথ্য জানান মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহিন আনাম। ছয়টি জাতীয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত ৩৯৮ প্রতিবেদন থেকে তথ্য সংগ্রহ করে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে।

সংবাদ বিশ্লেষণে তিনি আরও বলেন, সারাদেশে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৪৩৩টি শিশু। এর মধ্যে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩৫৬ জন। ধর্ষিণের শিকার হয়ে মারা গেছে ২২ শিশু এবং যৌন নির্যাতনের ফলে মারা গেছে একজন। এছাড়াও ধর্ষণের চেষ্টা চালানো হয়েছিল আরও ৫৩ শিশুর ওপর।

তিনি আরও জানান, সবচেয়ে উদ্বেগজনক ব্যাপার হচ্ছে এরই মধ্যে শুধু শিক্ষকদের দ্বারা ১২৯ শিশু নানাভাবে নির্যাতিত হয়েছে। শিক্ষকদের দ্বারা শারীরিকভাবে নির্যাতিত হয়েছে ৭০ জন এবং যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে ৩৩ জন।

এছাড়াও ২০১৮ সালে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শিশু অর্থাৎ ৪১৪ শিশু সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে ১৩৩ জন। যা ২০১৭ সালে ছিল ৩৭৫ জন।

২০১৮ সালে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে ১৯৭ টি। এর মধ্যে মারা গেছে ১৫২ জন শিশু বাকি ৪৫ টি শিশু আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে আহত হয়েছে।

সংবাদ বিশ্লেষণে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন এর প্রোগ্রাম কো-অডিনেটর রাফিজা শাহিন, মিডিয়ান কমিউনিকেশন কো-অর্ডিনেটর শাহানা হুদা রঞ্জনা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক শাহনাজ হুদা এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি রনি চাকমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। বাংলা ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত