প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নওশীন, তাজনুভা আর একাধিক অবৈধ সম্পর্কের কারণে সংসার ভেঙেছে: মিলা

বিনোদন প্রতিবেদক : স্বামী ও শাশুড়ির নির্যাতনের কারণে সামাজিক মাধ্যমে স্ট্যাটাস দেওয়ার পর বেশকদিন ধরে সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন দেশের জনপ্রিয় পপ তারকা মিলা ইসলাম। স্বামীর বিরুদ্ধে বেশকিছু অভিযোগ এনে বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার সংসার ভাঙা নিয়ে কথা বলেন, স্বামীর অবৈধ সম্পর্ক সংসার ভাঙার মূল কারণ উল্লেখ করে মিলা বলেন, আমার সহকর্মী হিল্লোল ভাইয়ের স্ত্রী নওশীনের সাথে আমার স্বামীর অবৈধ সম্পর্ক ছিলো। তাদের মধ্যে সামাজিক মাধ্যমে অশ্লীল ছবি আদান প্রদান হতো। এছাড়াও তার অনেক মেয়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক ছিলো।

সংসার ভাঙার জন্য আরও একজনের নাম প্রকাশ করেন মিলা। একুশে টিভির নিউজ প্রেজেন্টার তাজনুভা জাবিন নামে এক মেয়েকে সংসার ভাঙার জন্য দায়ি করেন। একুশে টিভির এই নারী কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে মিলা জানান, একাধিক পুরুষের সাথে তার দৈহিক সম্পর্ক ছিলো। মাঝখানে সে টাকার বিনিময়ে আমার স্মামীর সাথে জড়িয়ে গেলে সে আমার বিরুদ্ধে আমার স্বামীর কাছে অনেক মিথ্যা কথা বলেন। এসব কারণে আমার সংসার অশান্তি লেগে যায়। একপর্যায় আমার শাশুড়ি ও স্বামী আমাকে নির্যাতন শুরু করে।

মিলা, ছবি: সংগৃহীত

মিলার ভাষ্যনুযায়ী, নওশীন ও একুশে টিভির উপাস্থিপিকা তাজনুভা জাবিন এর কারণে সংসার ভেঙে যায় তার। এছাড়াও একাধিক মেয়ের অবৈধ সম্পর্কেই সংসারের এমন পরিণিতি হয় বলে দাবি তার।

মিলা সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বিয়ের দীর্ঘ ১২ বছর পর আমি জানতে পারি আমার স্বামীর সাথে অনেক মেয়ের অবৈধ সম্পর্ক আছে। জানার পর আমার স্মামী আমার কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন। এরপরও সে আমার সাথে চিট করেছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ১২ বিয়ে করেছিলেন মিলা ইসলাম ও পারভেজ সানজারি। তার স্বামী পেশায় একজন বৈমানিক। তিনি ইউএস বাংলার একজন কর্মকর্তা ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত