প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমাগুলো প্রেক্ষাগৃহে দর্শক টানতে ব্যর্থ

মহিব আল হাসান: ঢাকাই সিনেমার বর্তমান সময়ে নাজুক অবস্থা। নতুন বছরে এসে ঢাকাই ছবি মুক্তির সংখ্যা না থাকলেও চলতি মাসে এসে বেশ কয়েকটি নতুন ছবি মুক্তি পেয়েছে। ছবি মুক্তির পর থেকে হলে দর্শক খড়া চোখে পড়ার মতো।

এদিকে গেল সপ্তাহে প্রেক্ষাগৃহে দুটো ছবি মুক্তি পায়। একটি ছবি হলো হাবিবুল ইসলাম হাবিবের ‘রাত্রীর যাত্রী’। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন মৌসুমি ও আনিসুর রহমান মিলন। অন্যটি তৌকীর আহমেদের ‘ফাগুন হাওয়ায়’। এ ছবিতে জুটি বেঁধেছেন সিয়াম ও তিশা। এ দুটো ছবিই মুখ থুবড়ে পড়েছে। অপ্রত্যাশিতভাবে কমে গেছে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা। হলে ছবি দুটি বেশ ব্যাপক আকারে আশাহত করেছে সিনেমা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

প্রথম সপ্তাহে ‘রাত্রির যাত্রী’ ছবিটি ২০টি হল নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও এছবিটি এখন তিনটি হলে নেমেছে। অন্যদিকে ‘ফাগুন হাওয়ায়’ পঞ্চাশটি হল নিয়ে যাত্রা শুরু করলেও সেটি এখন চলছে আটটি হলে। ছবি দুটি আশানারুপ ফল পায়নি। আলোচিত ছবি দুটি নিয়ে হল মালিকরা পুঁজি পর্যন্ত ফেরত পায়নি। আলোচিত হবার পরেও দুটো ছবির ভরাডুবিতে বাংলা চলচ্চিত্র নিয়ে শংকিত সিনে দর্শকরা।

এর আগে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে মুক্তি পায় দুটি ছবি। শামীমুল ইসলাম শামীম পরিচালিত ‘আমার প্রেম আমার প্রিয়া’। চাষী নজরুল ইসলামের প্রধান সহকারী পরিচালক তারেক শিকদার পরিচালিত ‘দাগ হৃদয়ে’ দর্শক টানতে পারেনি। বছরের শুরুতে মুক্তি পাওয়া ‘আই অ্যাম রাজ’ তো ছিল হতাশাজনক। বছরের দুই মাস চললেও নেই কোনও সফলতা। তারপরও মুখিয়ে আসে সিনেমার সাথে সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে এ সপ্তাহে এসে মুক্তি পেয়েছে দুটি ছবি। এর মধ্যে বদিউল আলম খোকন পরিচালিত ‘অন্ধকার জগত’। এতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন ডিএ তায়েব ও মাহিয়া মাহি। এবং রাজিবুল হোসেনের ‘হৃদয়ের রংধনু’। ‘অন্ধকার জগত’ ছবিটি ৬০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় ও ‘হৃদয়ের রংধনু’ মাত্র একটি হলে মুক্তি পায়।

চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা বলছেন বর্তমান সময়ে এসে হলে দর্শক সিনেমা দেখছেন না। কারণ নির্মাণ শৈলী ও গল্পের কারণে এমন দশা। এখনও হলে দর্শক আসতে চাই বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন নির্মাতা বলেন, এখন সিনেমা তামিল কপি করে পরিচালকরা নির্মাণ করে। যার কারণে হলে সিনেমা দেখতে আসে না। সিনেমা যদি মৌলিক ও নিজস্ব সংস্কৃতিতে তৈরি হয় তাহলে হলে দর্শক অব্যশই আসবে।

আগামী মাসে মুক্তির অপেক্ষায় আছে মোস্তফা কামাল রাজের ‘যদি একদিন’, শাকিব খান অভিনীত ‘শাহেনশাহ’, তাসকিন অভিনীত ‘বয়ফ্রেন্ড’ ইত্যাদি। এই ছবিগুলো দিয়ে হলে দর্শক ফিরবে বলে আশা করছেন সিনেমা প্রেমীরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত