প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘৩ বছরের মধ্যে রিজার্ভ চুরির রায়’

পরিবর্তন : রিজার্ভ চুরির ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে বাংলাদেশ ব্যাংকের দায়ের মামলার রায় তিন বছরের মধ্যে পাওয়া যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

রোববার বিকেলে জরুরি সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান বাংলাদেশ ব্যাংকের আইনজীবী আজমাউল হোসেন কিউসি।তবে, বিভিন্ন পরিস্থিতিতে এ সময় কমতে বা বাড়তে পারে বলেও জানান তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) প্রধান আবু হেনা মোহাম্মদ রাজি হাসান, বিএফআইইউ’র পরামর্শক দেবপ্রসাদ দেবনাথ, বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আজমাউল হোসেন বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কের (ফেড) সঙ্গে মামলার বিষয়ে চুক্তি হয়েছে। তারা মামলার জন্য বিভিন্ন নথি, তথ্য সরবরাহ ছাড়াও সাক্ষ্য দেবে।’

তিনি বলেন, ‘১০৩ পৃষ্ঠার মামলায় ১৫ বিশিষ্ট ব্যক্তি, ৭টি প্রতিষ্ঠান ও ২৫ অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে।’এর আগে বাংলাদেশ সময় গত শুক্রবার ভোরে রিজার্ভ চুরির অর্থ ফিরিয়ে আনা, ক্ষতিপূরণের দাবিতে দোষীদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটন ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে মামলা করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে ভুয়া পেমেন্ট অর্ডারের বিপরীতে ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়।

সুইফটের নিরাপত্তা ব্যবস্থা হ্যাকড করে পাঁচটি বার্তার মাধ্যমে চুরি হওয়া এ অর্থের মধ্যে শ্রীলঙ্কায় যাওয়া ২ কোটি ডলার ফেরত আসে। তবে ফিলিপাইনে যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের মধ্যে এখনো ফেরত আসেনি ৬ কোটি ৬৪ লাখ ডলার। ফিলিপাইনের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকের মাধ্যমে এই অর্থ হ্যাকাররা তুলে নেন।

রিজার্ভ চুরির আলোচিত এই ঘটনা তদন্তে সে সময় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনের নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি সরকারের কাছে প্রতিবেদন দিলেও তার আর পরবর্তীতে প্রকাশ করা হয়নি।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় আরসিবিসি’র সাবেক শাখা ব্যবস্থাপক মায়া সান্তোস দেগুইতোকে সম্প্রতি ৫৬ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানা করেছেন ফিলিপাইনের একটি আদালত।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত