প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শহরের রাস্তায় চিতাবাঘ, ভয়ে গৃহবন্দী কয়েক লাখ মানুষ! (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট  : ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের জলন্ধর জেলা শহরের রাস্তায় ঢুকে পড়েছিল একটি চিতাবাঘ। প্রায় কয়েক ঘণ্টা তার তাণ্ডব সহ্য করার পর বশে আনা হয় চিতাটিকে। এই কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই চারজনকে কামড়েছিল চিতা বাঘটি। শহরের গলিতে গলিতে ঘুরছিল এই হিংস্র চিতাটি। শহরের ৮ লাখ মানুষকে কয়েক ঘণ্টা কার্যত গৃহবন্দী করে রেখেছিল এই বন্যপ্রাণীটি। দীর্ঘ ছয় ঘণ্টা পরে তাকে ধরে ফেলে বন্যপ্রাণী দফতরের কর্মীরা।

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার বাগানের কাছে বাসিন্দাদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ছে চিতা বাঘটি। চিতা দেখতেই জড়ো হয়েছিলেন ওই মানুষজন। পাঁচিলের উপর চড়তেও দেখা যাচ্ছে বাঘটিকে। অনেকেই আবার ভয়ে মাঠ থেকে বাঘটিকে তাড়াতে তাকে উদ্দেশ্য করে ঢিলও ছোঁড়ে। এক ব্যক্তি মইয়ের উপর উঠে চিতাকে ধরার জন্য তার উপর একটি জাল ছড়িয়ে দিতে চেষ্টা করছিলেন, চিতাটি লাফিয়ে মই থেকে ওই ব্যক্তিকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। যাদেরই বাঘটি হামলা করে, সকলেই গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন।

পাঞ্জাবের বন্যপ্রাণী দফতরের কর্মকর্তারা জানান, পশুটি হিমাচল প্রদেশের পাহাড়ের এলাকা থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে এবং তারপর ক্ষেত ও বন জঙ্গল পার করে জলন্ধরে এসে পড়েছে। বন্যপ্রাণী বিভাগের কর্মীরা প্রাথমিকভাবে জাল ব্যবহার করে বাঘটিকে ধরতে চেষ্টা করে কিন্তু পরে রাবার বুলেট ছুড়তে বাধ্য হন তারা।

 

তারা জানিয়েছেন, মানুষ যেভাবে চিতাবাঘ দেখতে ভিড় করেছে, নানাভাবে বাঘকে উত্যক্ত করেছে ভয় পেয়ে, তাতে উদ্ধারকাজ আরও কঠিন হয়েছে। জনগণকে দূরে রাখার জন্য পুলিশ অবশেষে ওই জেলার কিছু রাস্তা বন্ধও করে দেয়।

চিতা বাঘটিকে ধরার পর ছটবীর চিড়িয়াখানায় নিয়ে যাওয়া হয়। কর্মকর্তারা বলেন, ভবিষ্যতে চিতাটিকে নিয়ে কী করা হবে সেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে একে কয়েক দিনের জন্য পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। সূত্র: এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত