প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খুলনা-গাজীপুরের সিটি নির্বাচন বিতর্কমুক্ত হয়নি

ডেস্ক রিপোর্ট : আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী ব্যর্থ হলে আসন্ন তিন সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েন করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক-সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার। তিনি বলেন, খুলনা ও গাজীপুরের সিটি নির্বাচন বিতর্কমুক্ত হয়নি। রংপুরের মতো নিরপেক্ষ নির্বাচন হয়নি। নানা অভিযোগে অভিযুক্ত হয়েছে এ দুটি নির্বাচন। তবে নির্বাচন কমিশন ইচ্ছে করলে অনেক কিছুই করতে পারে। সংবিধান সে অধিকার দিয়ে রেখেছে।
সুজন সম্পাদক সিলেটে সফরকালে শনিবার সাংবাদিকদের কাছে এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের পরিবেশ নিয়েও কথা বলেন। সাংবাদিকদের জানান, সিলেটে এখন পর্যন্ত নির্বাচনী উত্তাপ তৈরি হয়নি। মনোনয়ন জমা দানকে কেন্দ্র নির্বাচন আচরণবিধি কিছুটা লঙ্ঘিত হয়েছে। তবে সেটি সামান্যই। নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা সে ব্যাপারে সতর্ক রয়েছেন। শুক্রবার তিনি সিলেট সিটি করপোরেশনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আঞ্চলিক নির্বাচনী কর্মকর্তা আলিমুজ্জামানের সঙ্গে তার কার্যালয়ে গিয়ে দেখা করেন ড. বদিউল আলম মজুমদার। এবার সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রাক্কালে সিলেটে প্রার্থীদের মুখোমুখি করাবে সুজন। এ ব্যাপারে তিনি রিটার্নিং কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেছেন। পাশাপাশি এখন পর্যন্ত নির্বাচনী কার্যক্রমও নিয়ে খোলামেলা কথা বলেন। ড. বদিউল আলম মজুমদার স্থানীয় নির্বাচনে দলীয় প্রভাব চান না। কিন্তু মার্কা দিয়ে নির্বাচনের কারণে স্থানীয় নির্বাচনও দলীয় হয়ে পড়েছে। তিনি বলেন, দলীয় প্রভাবের নির্বাচনে আতঙ্ক ছড়ায় বেশি। এতে করে ভোটাররাও শঙ্কিত হয়ে পড়েন। এজন্য স্থানীয় নির্বাচনগুলো দলীয় প্রভাবমুক্ত হওয়া উচিত। নির্বাচনকালীন সময়ে এলাকায় দ্বৈত শাসন চলছে বলে জানান তিনি। তফশিল ঘোষণার পর প্রশাসনিক সব কিছু নির্বাচন কমিশনের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ার কথা। কিন্তু এখনো দেশের চলমান নির্বাচনে সেটি পরিষ্কার হয়নি। দ্বৈত শাসনে চলে নির্বাচনকালীন সময়। তারা এবার এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন বলে জানান।
সূত্র : মানবজমিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ