প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘দণ্ডিত ব্যক্তির মুক্তির শর্ত দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ গ্রহণযোগ্য নয়’

তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, ‘দণ্ডিত ব্যক্তির মুক্তির শর্ত দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়া গ্রহণযোগ্য না। এটি গণতান্ত্রিক দাবি হতে পারে না। যে ব্যক্তি দণ্ড মাথায় নিয়ে জেলে বসে আছেন, তাকে মুক্তির শর্ত দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়া কোনোভাবেই শর্ত হতে পারে না।’

শনিবার (২১ এপ্রিল) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এসময় ডিআরইউ’র সভাপতি সাইফুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আকন্দ শুভসহ সংগঠনের অন্য নেতার উপস্থিত ছিলেন।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচন ইস্যুতে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মন্ত্রী-এমপিদের নিজ নিজ পদে থাকা অবস্থায় দেশে নির্বাচন হতে পারে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে এমন হয়। আমাদের দেশেও হতে পারে। এক্ষেত্রে মন্ত্রী-এমপিদের নির্বাচনি আচরণবিধি মানতে হবে। যেকোনও মূল্যে সাংবিধানিক প্রক্রিয়া রক্ষা করবো। নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র প্রতিহত করা হবে।’

ওয়েজবোর্ডের বিষয়ে তিনি বলেন, সাংবাদিক নেতাদের সমন্বয়ে একটি মনিটরিং কমিটি গঠন করা জরুরি। ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা তা এই কমিটি মনিটরিং করবে। এক্ষেত্রে তিনি সাংবাদিক নেতাদের সহযোগিতা কামনা করেন।

তিনি আরও বলেন, তিন হাজার পত্রিকার মধ্যে মাত্র ৯১টি পত্রিকা ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন করা হয়েছে। প্রিন্টের পাশাপাশি ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়নের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা চাওয়া হয়েছে। গণমাধ্যমে চাকরিচ্যুত করার ব্যাপারেও প্রস্তাবনা চাওয়া হয়েছে।

জিডিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট সম্পর্কে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘এ আইনের কিছু ধারা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ আইন শুধু সাংবাদিকদের জন্য করা হয়নি। এখনকার সমাজ ও পুরা বিশ্ব ডিজিটাল। সেক্ষেত্রে সব দিক নিরাপদ রাখতে এ আইন করা হয়েছে। সাইবার অপরাধীদের নিয়ন্ত্রণেও এটি একটি প্রশাসনিক পদক্ষেপ। এ আইনের কারণে সাংবাদিকদের কণ্ঠরোধ করা হয় এমন কোনও ধারা-উপধারা যাতে না থাকে তা দেখা হবে।’ বাংলা ট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত