প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘আন্তর্জাতিক মহলে বিশেষ চাপ সৃষ্টি করতে হবে’

খন্দকার আলমগীর হোসাইন : রোহিঙ্গাদের ফেরা নিয়ে অনিশ্চতা দেখা দিলেও আশাহত হওয়ার কিছু নেই। মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে চুক্তি হলেও কার্যকর হচ্ছে না। নেপথ্যে কিছু কারণ থাকে যা অজানা থেকে যায়। রাশিয়া, চীন ও ভারতের মতো রাষ্ট্র মিয়ানমারের সাথে আছে, এটা আমাদের বুঝতে হবে। আন্তর্জাতিক মহলের বিশেষ চাপ না থাকলে চুক্তি বাস্তবায়ন হওয়া কঠিন। এখানে কাউকে মধ্যস্থতা করতে হবে। যদিও বাংলাদেশের সাথেও মিয়ানমারের সুসম্পর্ক রয়েছে। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আমাদের অর্থনীতির সাথে আলাপকালে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক কূটনীতিক সাবিহ উদ্দিন আহমেদ এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায়, যে দেশে শরণার্থী থাকে, সে দেশও চায় না এর একটা সমাধান হোক। কারণ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দেশ ও সংস্থা থেকে সাহায্য-সহযোগিতা পাওয়ার বিষয় থাকে। মিয়ানমার ও বাংলাদেশ যে রোহিঙ্গা সমস্যার সত্যিকার সমাধান চায়, তা স্পষ্ট করতে হবে। আন্তর্জাতিক মহলে গুরুত্বপূর্ণ মধ্যস্থতাও জরুরি। কারণ নিজেরা নিজেরা কখনো সমস্যার সমাধান করতে পারে না। এখানে থার্ড পার্টির প্রয়োজন হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত