প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফোরজি লাইসেন্সের আবেদন ৫ অপারেটরের

ডেস্ক রিপোর্ট : ফোরজি লাইসেন্সিং গাইডলাইন ও তরঙ্গ নিলামে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) কার্যক্রম পরিচালনায় এখন আর কোনো আইনি বাধা নেই। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের আপিল বেঞ্চ গতকাল এ রায় দিয়েছেন। এর আগে এ কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ স্থগিত করেছিলেন চেম্বার আদালত। গতকাল চেম্বার আদালতের আদেশই বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

বণিক বার্তার তথ্যমতে, ফোরজি সেবার লাইসেন্স নিতে আবেদন করেছে পাঁচ সেলফোন অপারেটর। নির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী গতকাল ছিল লাইসেন্সের জন্য আবেদন জমা দেয়ার শেষ দিন। এদিন বিটিআরসি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান সংস্থার চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির কমিশনার (ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশনস) রেজাউল কাদের, কমিশনার (লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং) মো. জহুরুল হক, মহাপরিচালক (সিস্টেমস অ্যান্ড সার্ভিসেস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এমদাদুল বারী, মহাপরিচালক (লিগ্যাল অ্যান্ড লাইসেন্সিং) একেএম শহীদুজ্জামানসহ সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বিটিআরসি চেয়ারম্যান বলেন, ফোরজি লাইসেন্সের জন্য পাঁচটি প্রতিষ্ঠান আবেদন জমা দিয়েছে। এর মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান টেলিটক ছাড়াও রয়েছে গ্রামীণফোন, রবি আজিয়াটা, বাংলালিংক ও সিটিসেল। আর তরঙ্গ বরাদ্দের জন্য আবেদন করেছে গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক ও সিটিসেল। তবে ফোরজি লাইসেন্স পেতে এখনো বিদেশী প্রতিষ্ঠানের আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, আজ নতুন দিনের সূচনা ও নতুন অধ্যায় যোগ হচ্ছে। টেলিকম খাতে নতুন প্রযুক্তি নিয়ে আসার অংশ হিসেবে ফোরজির লাইসেন্স দেয়া হচ্ছে। শিগগিরই জনগণকে এ সেবা দেয়া সম্ভব হবে।

সময়সূচি অনুযায়ী ২৫ জানুয়ারি যোগ্য প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করবে বিটিআরসি। এছাড়া ২৯ জানুয়ারি নিলাম প্রক্রিয়া নিয়ে পরামর্শ, ৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিড আর্নেস্ট মানি পরিশোধ, ৭ ফেব্রুয়ারি নিলামে অংশগ্রহণকারীর স্বীকৃতি বা প্রত্যাখ্যানের চিঠি পাঠানো, ১২ ফেব্রুয়ারি নিলামের মহড়া, ১৩ ফেব্রুয়ারি তরঙ্গ নিলাম ও ১৪ ফেব্রুয়ারি বিজয়ী আবেদনকারীদের নোটিশ দেয়া হবে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত