শিরোনাম
◈ সরকারের কাছে 'আট দফা দাবি' কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ◈ শুক্রবারের সহিংসতায় ঢাকায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩২ জনে ◈ এটা অবশ্যই কারফিউ, এটা নিয়ম অনুযায়ীই হবে এবং সেটা শুট অ্যাট সাইট হবে: ওবায়দুল কাদের ◈ কারফিউ’র পরিপত্র জারি ◈ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা কোটা আন্দোলনকারীদের ◈ ওবায়দুল কাদের কারফিউ জারি প্রসঙ্গে যা বললেন ◈ সারা দেশে কারফিউ জারি, সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত ◈ নরসিংদীর কারাগারে হামলার পর বের হয়ে গেছে কয়েকশ কয়েদি ◈ বাংলাদেশে সহিংসতা ও মৃত্যুর ঘটনায় জাতিসংঘের উদ্বেগ ◈ রাজধানীর উত্তরা, মোহাম্মদপুর, বাড্ডাসহ বিভিন্ন এলাকায় আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

প্রকাশিত : ২২ মে, ২০২৩, ১১:৪৮ দুপুর
আপডেট : ২২ মে, ২০২৩, ০৪:০৫ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

বিশ্ব পরিভ্রমণ শেষে পারস্য উপসাগরে ফিরে এসেছে ইরানি নৌবহর

ইরানি নৌবহর

রাশিদ রিয়াজ: ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের ৮৬তম নৌবহর দীর্ঘ সমুদ্রযাত্রায় বিশ্ব পরিভ্রমণ শেষে নিজেদের পানিসীমায় ফিরে এসেছে। গভীর সমুদ্রে ইরানের নৌবাহিনীর উপস্থিতি বিস্তৃত করার লক্ষ্যে বিশ্ব পরিভ্রমণে বের হয় নৌবহরটি।

২০২২ সালের ২০ সেপ্টেম্বর নৌবহরটি সমুদ্রযাত্রা শুরু করে এবং ২৩৬ দিনের অভিযানের শেষে তারা ১৪ মে ওমানের সালালাহ বন্দরে নোঙর ফেলে। সেখান থেকে গতকাল (বুধবার) এই নৌবহর ইরানের নিজস্ব পানিসীমায় প্রবেশ করেছে। দীর্ঘ এই সমুদ্রযাত্রায় নৌবহরটি ৬৫ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে।

ইরানের এই নৌবহরে যুক্ত ছিল দিনা ডেস্ট্রয়ার এবং মাকরান যুদ্ধজাহাজ। এই বহর যাত্রা শুরুর পর প্রথম ভারতের মুম্বাই বন্দরে নোঙর করে। সেখান থেকে বঙ্গোপসাগর এবং মালাক্কা প্রণালী পেরিয়ে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় যাত্রাবিরতি করে। সেখান থেকে জাভা সাগর, মাকাসসার প্রণালী এবং সেলেবিস সাগর পেরিয়ে গভীর প্রশান্ত মহাসাগরে প্রবেশ করে। ইরানের নৌ বাহিনীর ইতিহাসে এই প্রথম প্রশান্ত মহাসাগরের গভীরে ইরানি যুদ্ধজাহাজের প্রবেশ করার ঘটনা।

এরপর প্রশান্ত মহাসাগরের সবচেয়ে প্রশস্ত এলাকা পেরিয়ে মাইক্রোনেশিয়া ও পলিনেসিয়া হয়ে দক্ষিণ আমেরিকার ম্যাগেলান প্রণালী পার হয়। এরপর দক্ষিণ আটলান্টিক মহাসাগরে পড়ে ইরানের এই নৌবহর। এরপর আরো উত্তরে এগিয়ে চিলি, আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে এবং ব্রাজিলের উপকূল হয়ে চূড়ান্তভাবে ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরো বন্দরে অবস্থান নেয়। সেখানে কয়েকদিন অবস্থানের পর ইরানি বহর আটলান্টিক মহাসাগর পেরিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন বন্দরে ভেড়ে। সেখান থেকে ওমানের সালালাহ বান্দরে আসে এবং সেখানে দুই দিন অবস্থানের পর ইরানের নিজস্ব পানি সীমায় ফিরে আসে।/পার্সটুডে/

আরআই/এইচএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়