শিরোনাম

প্রকাশিত : ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩, ১২:৪৩ দুপুর
আপডেট : ২৬ জানুয়ারী, ২০২৩, ১২:৪৩ দুপুর

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

অনূর্ধ্ব-২০ সাউথ আমেরিকা চ্যাম্পিয়নশিপ

পেরুকে হারিয়ে হেক্সা মিশনে আশা বাঁচিয়ে রাখল আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব-২০

স্পোর্টস ডেস্ক: সাউথ আমেরিকা চ্যাম্পিয়নশিপে অনূর্ধ্ব-২০ এর প্রথম দুই ম্যাচে প্যারাগুয়ে ও চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের কাছে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে ব্যাকফুটে যায় আর্জেন্টিনার যুবারা। তবে তৃতীয় ম্যাচে পেরুকে ১-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে হেক্সা মিশনে আশা বাঁচিয়ে রাখল মেসি ও ডি মারিয়াদের অনুসারীরা। আরটিভি

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) দিবাগত রাতে এস্তাদিও অলিম্পিকোতে ‘এ’ গ্রুপে আর্জেন্টিনার ম্যাচে শুরু থেকেই বল দখলে নিয়ে এগিয়ে ছিল আলবিসেলেস্তেরা। কিন্তু ফিনিশিংয়ের অভাবে কাঙ্খিত গোলের দেখা পাচ্ছিল না কোচ হ্যাভিয়ের ম্যাশচেরানোর দল। ফলে গোলশূন্য অবস্থাতেই বিরতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছিল প্রথমার্ধের খেলা।

বিরতির ঠিক ৪ মিনিট আগে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে নেন মিডফিল্ডার গিনো ইনফান্তিনো। তার গোলে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনার যুবারা। বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে পেরুরু যুবারা। কিন্তু আর্জেন্টিনার যুবাদের সঙ্গে সমানে সমান লড়াই করেও গোল আদায় করতে পারেনি তারা।

অন্যদিকে আর্জেন্টিনাও আর গোল না পেলে ১-০ গোলের জয়ে ৩০তম অনূর্ধ্ব-২০ সাউথ আমেরিকা চ্যাম্পিয়নশিপে পরের রাউডে যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখে আর্জেন্টিনার যুবারা।

‘গ্রুপ এ’তে আর্জেন্টিনা তিনটি ও পেরু নিজেদের কোটার চার ম্যাচ খেলে ফেলেছে। সেখানে পেরু কোনো ম্যাচে জয়ের মুখ দেখেনি। অন্যদিকে আর্জেন্টিনা দুই ম্যাচ পরাজয়ের পর পেরুর বিপক্ষে জয়ের স্বাদ পেয়েছে। ফলে তিন পয়েন্ট নিয়েও তালিকার চতুর্থ স্থানে রয়েছে।

এখন নিজেদের শেষ ম্যাচে কলম্বিয়ার বিপক্ষে জয়ের সঙ্গে গ্রুপের অন্য দলগুলোর দিকেও চেয়ে থাকতে হবে আকাশি নীল শিবিরকে। আর কামনা করতে হবে যাতে কলম্বিয়া তাদের শেষ দুই ম্যাচে হারে। কেননা তিন ম্যাচে দুই জয় ও এক ড্রয়ে প্যারাগুয়ে ৭ ও ব্রাজিল দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে কোন সমীকরণ ছাড়াই প্রায় পরবর্তী রাউন্ড নিশ্চিত করে ফেলেছে।

তাই তৃতীয় দল হিসেবে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার জন্য লড়াই হবে কলম্বিয়া ও আর্জেন্টিনার মধ্যে। কলম্বিয়ার মতো সমান সুযোগ রয়েছে আর্জেন্টাইন যুবাদের সামনে। পেরুকে হারিয়ে নিজেদের কাজটা সেরে রাখল আর্জেন্টিনা। রিপোর্ট: এ্যানি আক্তার

এএ/এএ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়